Headlines
Loading...
বর্ধমান পুরসভার শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হলো না সংবাদ মাধ্যমকে, নিন্দা

বর্ধমান পুরসভার শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হলো না সংবাদ মাধ্যমকে, নিন্দা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: সাদামাটা অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে বর্ধমান পুরসভার নব নির্বাচিত কাউন্সিলার দের ও চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান এর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হল বর্ধমান শহরের স্পন্দন ময়দানে। সাজানো গোছানো বিশাল মঞ্চে এদিন প্রত্যেক কাউন্সিলার কে শপথ বাক্য পাঠ করান বর্ধমানের মহকুমা শাসক (উত্তর) তীর্থঙ্কর বিশ্বাস। উপস্থিত ছিলেন বর্ধমান দক্ষিণের বিধায়ক খোকন দাস। তবে ৩৫ টি ওয়ার্ড বিশিষ্ট বর্ধমান পুরসভার ৩৩জন নব নির্বাচিত কাউন্সিলার এদিনের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকলেও ২৭নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলার সেখ বসীরুদ্দিন আহমেদ ও ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলার আইনজীবী অরূপ দাস এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন না। এব্যাপারে নব গঠিত বর্ধমান পুরসভার পৌরপতি পরেশ চন্দ্র সরকার জানিয়েছেন, কাউন্সিলাররা পরেও শপথ নিতে পারবেন। তবে এদিন কেনো দুজন আসেননি সে ব্যাপারে তাঁর সঠিক কারণ জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দেখবেন। 


এদিকে আশ্চর্যজনক ভাবে বর্ধমান পুরসভার শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে সংবাদ মাধ্যম কে আমন্ত্রণ না জানানোয় বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। কি কারণে সংবাদ মাধ্যম কে এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হলো না সে ব্যাপারে পুরসভার সূত্রে জানা গেছে, এই বিষয়টি সম্পূর্ন জেলা প্রশাসনের অধীন। যতক্ষণ না পুরবোর্ড গঠন সম্পূর্ণ হচ্ছে এই ধরনের বিষয় তাদের এক্তিতারে পড়ে না। এদিকে শহর তৃণমূল নেতৃত্বের একাংশ এই ঘটনার নিন্দা করেছেন। তারা এও জানিয়েছেন, সংবাদ মাধ্যম সমাজের দর্পণ। এতবছর পর ফের পুরসভা গঠনের অনুষ্ঠানের গুরুত্ব বুঝে সংবাদ মাধ্যম কে অবশ্যই আমন্ত্রণ জানানো উচিত ছিল। 


অন্যদিকে এই বিষয়ে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত অনেকেই সংবাদ মাধ্যম কে আমন্ত্রণ না জানানোর পিছনে রাজনৈতিক অশান্তির আশঙ্কার সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করেছেন। অনেকেরই অভিমত, ২০১৩ সালে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে তুমুল ঝামেলার স্মৃতি এখনও বর্ধমানবাসীর মনে আছে। এবারেও যদি সে ধরনের কোন অপ্রীতিকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয় তার থেকে এড়িয়ে চলবার কারণেই সংবাদ মাধ্যম কে হয়তো ডাকা হয়নি। অনেকে আবার এও জানিয়েছেন, সম্প্রতি ভোটের ফল ঘোষণার পর শহরের ২৭নং ওয়ার্ডে এক নাবালিকা তৃণমূল কর্মীর আত্মঘাতী হওয়ার ঘটনায় রাজ্য জুড়ে তার প্রভাব পড়েছে।


সেই ওয়ার্ডের খোদ কাউন্সিলারের নাম এই ঘটনায় যুক্ত হয়েছে। সেক্ষেত্রে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে অভিযুক্ত কাউন্সিলার এলে বিক্ষোভের সম্ভাবনা তৈরি হওয়ার আশঙ্কা থাকতে পারে। এই আশঙ্কা থেকেও সংবাদ মাধ্যম কে এড়িয়ে যেতেই প্রশাসনিক ভাবে আমন্ত্রণ জানানো থেকে বিরত থাকা হয়েছে। তবে সব সম্ভাবনার প্রসঙ্গ এড়িয়েই বর্ধমান পুরসভার বিরোধী শূন্য তৃণমূলের পুর বোর্ড গঠনের অনুষ্ঠানে সংবাদ সংগ্রহের উদ্দেশ্যে এদিন হাজির হয়েছিলেন একাধিক সংবাদ মাধ্যমের প্রতিনিধি।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});