Headlines
Loading...
সেনা-পুলিশ যৌথ প্রচেষ্টায় বড়সড় নাশকতার ছক বানচাল, সরকারি বাসে উদ্ধার বাক্স ভর্তি তাজা বোমা, গ্রেপ্তার এক

সেনা-পুলিশ যৌথ প্রচেষ্টায় বড়সড় নাশকতার ছক বানচাল, সরকারি বাসে উদ্ধার বাক্স ভর্তি তাজা বোমা, গ্রেপ্তার এক


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,গলসি: সেনাবাহিনীর গোয়েন্দাবিভাগ সূত্রে খবর পেয়ে গলসি থানার পুলিশ ২নং জাতীয় সড়কে কুলগড়িয়া চটি এলাকা থেকে দক্ষিনবঙ্গ পরিবহন সংস্থার একটি বাসের ভিতর থেকে ২০টি তাজা বোমা ভর্তি বাক্স সহ এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। আর সেনা - পুলিশের যৌথ প্রচেষ্টায় বড়সড় নাশকতার ছক বানচাল করে দেওয়া সম্ভব হয়েছে বলেই মনে করছে বাসযাত্রী সহ সাধারণ মানুষ। 


জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার দুপুর প্রায় তিনটে নাগাদ পানাগড় সেনা ছাউনির ইন্টিলিজেন্স বিভাগ থেকে ফোনে গলসি থানায় খবর দেওয়া হয় কলকাতা থেকে পানাগড় মুখী একটি দক্ষিনবঙ্গ পরিবহন সংস্থার বাসে এক ব্যক্তি একটি কার্ড বোর্ডের বাক্সে কিছু তাজা বোমা নিয়ে সফর করছে। আর এরপরই গলসি থানার পুলিশ তৎপরতা শুরু করে দেয়। কুলগড়িয়া চটি এলাকায় ২নং জাতীয় সড়কের দুর্গাপুর মুখী রাস্তায় গার্ডরেল লাগিয়ে নাকা চেকিং শুরু করে পুলিশ।



 সন্ধ্যা ৫টা ৩৫ মিনিট নাগাদ সূত্র মারফত পাওয়া নির্দিষ্ট নম্বরের বাসটি আসতেই পুলিশ বাসটিকে দাঁড় করায়। পুলিশ জানিয়েছে, প্রথমে যাত্রীদের কাছে জানতে চায় তাঁদের কাছে কোনো বোমা ভর্তি ব্যাগ আছে কিনা। বাসের যাত্রীরা অস্বীকার করলে পুলিশ বাসের ভিতর ঢুকে তল্লাশি শুরু করে। তখনই সরফরাজ আনসারী নামে এক যুবকের সিটের নীচে নির্দিষ্ট তথ্য অনুযায়ী একটি কার্ড বোর্ডের বাক্স দেখতে পান তাঁরা। সরফরাজ আনসারীকে আটক করা হয়। পাশাপাশি অতি সাবধানতার সঙ্গে বাক্স টিকেও পুলিশ উদ্ধার করে। এই সমগ্র ঘটনার সাক্ষী হিসেবে পুলিশ বাসের চালক এবং কন্ডাক্টর কে হাজির রেখেছিল। 


পুলিশ জানিয়েছে, ধৃত ব্যক্তির কাছ থেকে সিম সহ একটি মোবাইল ফোন, বাসের টিকিট এবং সাদা ও ছাই রঙের একটি কাপড়ের ব্যাগ বাজেয়াপ্ত করেছে। এদিকে পুলিশ জানিয়েছে, ধৃত সরফরাজ আনসারী কে আটক করার পর পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত স্বীকার করেছে, গতকাল কলকাতার এস্প্ল্যানেড থেকে সরকারি বাসে সে একটি বোমা ভর্তি বাক্স নিয়ে পানাগড় আসছিল। ইব্রাহিম খান ওরফে এহসান আলম নামে কলকাতার এন্টালির আঞ্জুমান রোডের বাসিন্দা এক ব্যক্তি তাকে এই বাক্স বাসে তুলে দিয়ে পানাগড়ে নামার জন্য জানিয়েছিল। 



ধৃত আরো জানিয়েছে, ইব্রাহিম খান নামে ওই ব্যক্তি তাকে জানিয়েছিল, সে মোটর সাইকেলে পানাগড় আসবে। সেইমতো বোমা ভর্তি বাক্স নিয়ে সরফরাজ বাসে পানাগড় আসছিল। গোপন সূত্রে এই খবর পানাগড় সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা বিভাগ পাওয়ার পরই গলসি থানার পুলিশ কে জানিয়ে দেওয়া হয়। পুলিশ যুদ্ধকালীন তৎপরতায় তিনঘন্টার মধ্যেই বোমা ভর্তি বাক্স সহ দুস্কৃতিকে আটক করে রীতিমত বড়সড় নাশকতার ছক বানচাল করে দিল বলেই জানিয়েছেন জেলা পুলিশের আধিকারিকরা। বুধবার ধৃত কে বর্ধমান আদালতে পেশ করেছে পুলিশ। অন্যদিকে, তাজা বোম গুলিকে এদিনই বোম্ব ডিসপোজাল স্কোয়াডের তত্ত্বাবধানে নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া হয়।

0 Comments: