Headlines
Loading...
বিশ্ব বন্যপ্রাণ দিবসে লুপ্তপ্রায় চারটি পশু পাখিকে দত্তক নিল বর্ধমানের ৪যুবক যুবতি

বিশ্ব বন্যপ্রাণ দিবসে লুপ্তপ্রায় চারটি পশু পাখিকে দত্তক নিল বর্ধমানের ৪যুবক যুবতি


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: ৪ ডিসেম্বর বিশ্ব বণ্যপ্রাণ দিবস। আর সেই উপলক্ষে লুপ্তপ্রায় চারটি বন্যপ্রাণীর দত্তক নিয়ে নজির সৃষ্টি করলেন পূর্ব বর্ধমানের পাল্লা রোড এলাকার ৪ যুবক যুবতি। সন্দীপন সরকার, রুপাঞ্জন ঘোষ, সত্যজিৎ ঘোষ ও অদিতি দাস যথাক্রমে ১টি হেডগেহগ, ২টি বার্ডগেরিজার, ১টি জাভা স্প্যারো এদিন আলিপুর চিড়িয়াখানার অতিরিক্ত ডিরেক্টর পার্থ দেবনাথের হাত থেকে দত্তক গ্রহণ করেন।


পাশপাশি এদিনই এদের মধ্যে তিনজনের হাতে পশুপাখি দত্তকের শংসাপত্রও তুলে দেন তিনি। আলিপুর চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, আগামী এক বছরের জন্য এই ৪টি দত্তক নেওয়া পশুপক্ষী দের যাবতীয় ভরণপোষণ করবেন এই চারজন। তরুণদের এইভাবে বণ্যপ্রাণ কে ভালোবেসে এগিয়ে আসার এই প্রয়াস কে কুর্ণিশ জানিয়েছেন পশুপ্রেমী জেলাবাসী। 


ভবিষ্যতে এই যুবক যুবতীদের উদ্যোগ কে দেখে অনেকে এগিয়ে আসবেন বলেই মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল।
প্রসঙ্গত সত্যজিৎ ঘোষ অসুস্থ থাকায় এদিন তিনি চিড়িয়াখানায় আসতে পারেননি সশরীরে। চিড়িয়াখানা সূত্রে জানা গেছে, দত্তক নেওয়া হেডগেহগ আদতে সজারুর মতন দেখতে একটি বন্যপ্রাণী, জাভা স্প্যারো ও বার্ডগেরিজার বন্যপাখি। এরা লুপ্তপ্রায় হতে বসেছে। দত্তক গ্রহিতাদের নাম লেখা বোর্ডও এদিন টাঙানো হয় তাদের খাঁচার সামনে, যাতে অন্যরা দেখে উদ্বুদ্ধ হতে পারে।


দত্তক নেওয়া যুবক সন্দীপন সরকার, রুপাঞ্জন ঘোষরা বলেন, মানুষ যেমন কাউকে দত্তক নিয়ে তাদের ভবিষ্যতের অবলম্বন হিসেবে বড় করে তোলেন ঠিক তেমনই এই ৪টি পশুপাখিকে দত্তক নিয়ে বাস্তুতন্ত্রের তথা পরিবেশের ভবিষ্যতের অবলম্বন হিসেবে তৈরি করা। দত্তক নেওয়া সকলেই জানিয়েছেন, এই লুপ্তপ্রায় পশুপাখিদের আগলে রেখে যত্নে বাঁচিয়ে রাখার দায়িত্ব সমাজের সকলেরই।




0 Comments: