Headlines
Loading...
১০৮ স্বাদের পানের পসরা নিয়ে রাজ্যে প্রথম বর্ধমানে খুললো পান অ্যারোমার আউটলেট

১০৮ স্বাদের পানের পসরা নিয়ে রাজ্যে প্রথম বর্ধমানে খুললো পান অ্যারোমার আউটলেট


সৌরীশ দে,বর্ধমান: খাইকে পান বানারসওয়ালা, খুল যায় বন্ধ অকাল কা তালা - ১৯৭৮ সালের অমিতাভ বচ্চন অভিনীত ব্লগ ব্লাস্টার হিন্দি সিনেমা ডনের এই গান রীতিমত তুফান তুলেছিল আসুমদ্রহিমাচল। নায়কের পান খেতে খেতে গানের সিকুয়েন্সে আসক্ত হয়েও পড়েছিলেন অগুনিত ভারতবাসী। পান খাওয়াটা একটা ট্রেন্ড তৈরি করেছিল। আজও পান প্রেমিক মানুষের সংখ্যাটা নেহাত কম নয়। তবে যুগের তালে পান তৈরির ক্ষেত্রেও এসেছে আধুনিকতার ছোঁয়া। 


এখন আর কেবল মিষ্টি পান বা জর্দা পান নয়, এক্কেবারে ১০৮ ধরণের স্বাদের পান পেয়ে যাবেন একই ছাদের তলায়। বর্ধমান শহরের মিরছোবা এলাকার একটি বিলাসবহুল হোটেল এবং ব্যাংকুয়েট হলের নীচে সুদূর গাজিয়াবাদের 'পান অ্যারোমা' গ্রুপ নানান স্বাদের পানের পসরা নিয়ে হাজির হয়েছে। যাদের গোটা দেশ জুড়ে প্রায় ২০০টি আউটলেট রয়েছে পানের দোকানের। আর বর্ধমানের মিরছোবার এই 'পান অ্যারোমা বর্ধমান ক্যাফে' পশ্চিমবাংলায় তাদের প্রথম আউটলেট বলেই জানালেন বিহারের পাটনা নিবাসী পান প্রস্তুতকারক গোলু সিং।


সাজানো গোছানো সদ্য উদ্বোধন হওয়া এই বাহারি পানের দোকানের একটি দেওয়ালেই টাঙানো রয়েছে পানের তালিকা। মোট ১১টি ক্যাটাগরী তে ভাগ করা আছে ১০৮রকমের ভিন্ন ভিন্ন স্বাদের পানের নাম। বাজার চলতি পানের সঙ্গে এই দোকানের পানের গুণমান একেবারেই আলাদা বলে দাবি করেছেন পান প্রস্তুতকারী কোম্পানির কর্মী গোলু সিং। তাঁর দাবি একবার তাঁদের দোকানের পানের স্বাদ যিনি গ্রহণ করবেন,তাঁর আবার ইচ্ছা করবেই এখানে আসার। তিনি জানিয়েছেন, ৮ থেকে ৮০ সকলের জন্যই রয়েছে হরেক স্বাদের পান। তিনি জানিয়েছেন, সব ধরণের পান তৈরির উপকরণও মজুদ রাখা হয়েছে পান অ্যারোমা বর্ধমান ক্যাফে তে।


গোলু সিং জানিয়েছেন, বর্ধমানের কাউন্টার থেকে এখন মিষ্টি পান, চাটনি পান, ফ্লেভার পান, কুলফি পান, ফায়ার্স পান, পান আরোমা স্পেশাল, স্মোক পান, লাড্ডু পান, ভি আই পি পান, চিলড্রেন্স স্পেশাল এবং ঝাঁকানো (shakes)পানের নানান পদ নিয়ে তাঁরা প্রস্তুত রয়েছেন। তবে তিনি জানিয়েছেন, অল্প কিছুদিন এই পানের দোকান খুলেছে বলেই হয়তো বর্ধমানের মানুষ এখনো ভারতবিখ্যাত শতাধিক পানের সম্ভার এর খোঁজ জানতে পারেননি। তবে ইতিমিধ্যেই পানপ্রেমী মানুষ দোকানে আসছেন। বিশেষ করে মিষ্টি পান, ফ্লেভার, কুলফি, ফায়ার্স, জর্দা, ড্রাই ফ্রুট মিঠা, সিলভার এবং গুন্ডি পান এর স্বাদ নিচ্ছেন। 


তিনি আশা করছেন খুব শীঘ্রই অন্যান্য আরো বিভিন্ন স্বাদের পানের আস্বাদন নিতে মানুষ পান অ্যারোমায় ভিড় জমাবেন। গোলু সিং জানিয়েছেন, কম বয়সীদের জন্যও রয়েছে হরেক স্বাদের স্বাস্থ্যকর পানের সম্ভার। যেটা বর্ধমান তথা এই রাজ্যে প্রথম। ফলে মফস্বল শহরের তকমা ছেড়ে ক্রমশই সাবালক হচ্ছে বর্ধমান। রাজধানী কলকাতার পর এবার খোদ বর্ধমানেও মিলছে একাধিক সুযোগ সুবিধা। বিলাসবহুল হোটেল থেকে আধুনিক পানশালার পর এবার রসনা তৃপ্তিতে নজীর গড়ল বর্ধমান শহর বলেই মনে করছেন বর্ধমানবাসী।






0 Comments: