Headlines
Loading...
বর্ধমানে অবৈধ বালি খাদানে হানাদারির সময় ঘেরাও সরকারি আধিকারিক, তীব্র উত্তেজনা, পরে পুলিশি হস্তক্ষেপে মুক্ত

বর্ধমানে অবৈধ বালি খাদানে হানাদারির সময় ঘেরাও সরকারি আধিকারিক, তীব্র উত্তেজনা, পরে পুলিশি হস্তক্ষেপে মুক্ত


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: অবৈধ বালি ঘাটে পূর্ব বর্ধমান জেলা ভূমি ও ভূমি রাজস্ব দপ্তরের আধিকারিকদের অভিযান ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়াল বড়শুলের মানিকহাটি এলাকার দামোদর নদের একটি বালি খাদানে। বৃহস্পতিবার বিকেলে সরকারি হানাদারির খবর পেয়েই বালি ঘাটে রীতিমত ছোটাছুটি শুরু হয়ে যায়। এরই মধ্যে একটি বালির লরির চালক গাড়ি থেকে সরাসরি দামোদরের জলেই ঝাঁপ মেরে দেয় পালিয়ে যাবার জন্য। আর এরপরই উত্তেজনা চরমে পৌঁছায়। 

স্থানীয় বালি ঘাটের অস্থায়ী কর্মীরা এবং গ্রামবাসী মিলে অভিযানের নেতৃত্বে থাকা বিশেষ রাজস্ব আধিকারিক-২ গদাধর পালকে ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। তাদের অভিযোগ ছিল, লরির চালককে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তারা আশঙ্কা করছেন ওই ব্যক্তি জলে তলিয়ে গিয়ে থাকতে পারেন। গ্রামবাসীদের বিক্ষোভে প্রায় ঘন্টা খানেক আটকে পড়েন আধিকারিক। 

পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে খবর দেওয়া হয় শক্তিগড় থানায়। এরপর পুলিশ গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আনে। চালক কেও খুঁজে পাওয়া যায়। এরপর ঘেরাও মুক্ত করে নিয়ে আসা হয় অধিকারিককে। এদিকে অবৈধ বালি খাদানে জেলা প্রশাসনের অভিযান ঘিরে এদিনের ঘটনার পরই বড়শুল, সদরঘাট, রায়না এলাকার প্রায় বেশিরভাগ অবৈধ বালি খাদানই বন্ধ হয়ে যায়।  জেলা ভূমি ও ভূমি রাজস্ব দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, দামোদর থেকে অবৈধভাবে বালি উত্তোলন এবং বৈধ চালান ছাড়া বালি পরিবহন রুখতে এই অভিযান লাগাতার জারি থাকবে।

0 Comments: