728x90 AdSpace

Latest News

Tuesday, 28 September 2021

ছাদ নোংরা করছে পাখিতে - তাই বিষ দিয়ে পাখি হত্যার অভিযোগ দায়ের হল বর্ধমান থানায়, উদ্ধার মৃত ৬টি পায়রা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: পাশের বাড়ি থেকে উড়ে এসে প্রতিবেশীর বাড়ির ছাদে খেলা করে বেড়াতো একঝাঁক পায়রা, ঘুঘু। আর এতেই আপত্তি ছিল বাড়ি মালিকের। শেষমেষ অবলা, নিরীহ এই পাখিদের অত্যাচার বন্ধ করতে বাড়ি মালিকের বিরুদ্ধে ছাদের গাছপালায় বিষ দিয়ে পাখিদের মেরে ফেলার অভিযোগ দায়ের হল বর্ধমান থানায়। নির্মম এই কাণ্ডের প্রতিবাদে ইতিমধ্যেই সোচ্চার হয়েছে একাধিক পশু পক্ষী প্রেমী সংগঠন। ঘটনাটি ঘটেছে বর্ধমান শহরের বড়নিলপুর কমলাদীঘির পাড় এলাকায়। অভিযুক্তের নাম নিরূপ কুমার দাস। 

অভিযোগকারী পশুপ্রেমী সান্তনু দাস জানিয়েছেন, তিনি দীর্ঘদিন ধরেই তাঁর বাড়ির ছাদে পাখিদের বসবাস করার ব্যবস্থা করে রেখেছেন। কিছু পোষা পাখিও আছে। প্রতিদিন সকালে এদের ছেড়ে দেওয়া হয়, উড়ে বেড়ানোর জন্য। তিনি জানিয়েছেন, পায়রা, ঘুঘু পাখির পাশপাশি অন্যান্য আরো কিছু পাখি রোজ খাবার খোঁজে তাঁর বাড়ির ছাদে এবং আশপাশের প্রতিবেশীদের ছাদে এসে ভিড় করে। কিন্তু তাঁরই আত্মীয় তথা প্রতিবেশী নিরূপ কুমার দাস তার বাড়ির ছাদে পাখিদের আনাগোনা পছন্দ করেন না। সান্তনু বাবু জানিয়েছেন, নিরূপ বাবুর অভিযোগ এই পাখিরা তার ছাদ নোংরা করে। আর তার জন্যই তিনি নাকি ছাদে গাছের টবে বিষ দিয়ে রেখেছিলেন। 

সান্তনু বাবু জানিয়েছেন, গত রবিবার তিনি বাড়িতে ছিলেন না। পুলিশের পরীক্ষা দিতে বাইরে গিয়েছিলেন। আর সেইদিনই তাঁর মা এবং পরিবারের সদস্যরা লক্ষ্য করেন পায়রাগুলো ভীষণভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। পরে এদের মধ্যে ৬টি পায়ারকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করেন তিনি। বাকিদের এখনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। আর এই নৃশংস এবং নির্মম ঘটনার বিহিত চেয়ে অভিযুক্ত প্রতিবেশীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বর্ধমান থানায় অভিযোগ জানিয়েছেন। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মৃত পায়রাগুলোর ময়না তদন্ত করা হবে। রিপোর্ট আসার পর তদন্ত করে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
ছাদ নোংরা করছে পাখিতে - তাই বিষ দিয়ে পাখি হত্যার অভিযোগ দায়ের হল বর্ধমান থানায়, উদ্ধার মৃত ৬টি পায়রা
  • Title : ছাদ নোংরা করছে পাখিতে - তাই বিষ দিয়ে পাখি হত্যার অভিযোগ দায়ের হল বর্ধমান থানায়, উদ্ধার মৃত ৬টি পায়রা
  • Posted by :
  • Date : September 28, 2021
  • Labels :
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top