Headlines
Loading...
সাতগাছিয়ার জলাশয় থেকে পরিযায়ী পাখি সহ বাচ্চা উদ্ধার করল পশুপ্রেমী সংস্থা

সাতগাছিয়ার জলাশয় থেকে পরিযায়ী পাখি সহ বাচ্চা উদ্ধার করল পশুপ্রেমী সংস্থা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: জলাশয়ে জেলেদের জালে আটকে পরা পরিযায়ী পাখি আর দুটো সদ্যজাত বাচ্চা উদ্ধার করল বর্ধমানের পশুপ্রেমী সংস্থা। সংস্থার সদস্য অর্ণব দাস জানিয়েছেন, মেমারী থানার সাতগাছিয়ার পর্ষাপুর এলাকার বাসিন্দা সৌমাভ ঘোষ গতকাল ফোন করে তাঁদের জানান, একটি পুকুরে অদ্ভুত প্রজাতির একটি হাঁস এবং তার দুটো বাচ্চা জালে আটকে রয়েছে। এদের উদ্ধার করতে হবে। এরপর বর্ধমান সোসাইটি ফর এনিম্যাল ওয়েলফেয়ার সংস্থার পক্ষ থেকে অর্ণব দাস, দেবব্রত বিশ্বাস এবং রতন দাস এই তিনজন ঘটনাস্থলে পৌঁছে জলে নেমে দীর্ঘক্ষনের চেষ্টায় বিরল এই পরিযায়ী পাখি সহ বাচ্চাদের উদ্ধার করে। অর্ণব দাস জানিয়েছেন, মা পাখিটির দুটি ডানায় চোট রয়েছে। একইসাথে সদ্যজাতদের সুস্থ অবস্থায় আগামী কয়েকদিন পর্যবেক্ষণে রাখার পর এদের ছেড়ে দেওয়া হবে।

অর্ণব দাস জানিয়েছেন, উদ্ধার হওয়া পাখিটির সরাল প্রজাতির (lesser whistling duck)। বাংলাদেশ, মায়ানমার এলাকায় মূলত এদের বিস্তার। প্রধানত শীতের সময় এরা দল বেঁধে এক দেশ থেকে আরেক দেশে চলে আসে। তিনি জানিয়েছেন, এই পাখিটিও দলের সঙ্গেই এসেছিল। এখানেই ডিম পাড়ে। তাই সম্ভবত দলছুট হয়ে মা পাখিটি আটকে পড়ে এখানেই।সেই ডিম ফুটেই দুদিন আগে দুটি বাচ্চা হয়। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, কিছুদিন আগেও পুরুষ সঙ্গী সরাল টিকে দেখা গিয়েছিল। তাঁরা অনুমান করছেন, মহিলা সঙ্গীটি জালে আটকে পরার পরই পুরুষ সঙ্গীটি উড়ে চলে যায়।
পাখিটির লাল রঙের জন্য এর সৌন্দর্য্য আরও বাড়িয়ে তুলেছে। পশুপ্রেমী সংস্থার সদস্যরা জানিয়েছেন, এক শ্রেণীর পাখি চোরাচালানকারী আছে যারা এই ধরণের পাখিদের খাবার জন্য মেরে ফেলছে।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});