Headlines
Loading...
ভারতে এবং বাংলাদেশে এই প্রথম পশু চিকিৎসায় অনলাইন পরিষেবা চালু করেছে বর্ধমানের পশুপ্রেমী সংস্থা

ভারতে এবং বাংলাদেশে এই প্রথম পশু চিকিৎসায় অনলাইন পরিষেবা চালু করেছে বর্ধমানের পশুপ্রেমী সংস্থা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: এবার গৃহপালিত পোষ্যই হোক অথবা রাস্তার – ঘরে বসেই তাদের চিকিৎসার দেওয়ার উন্মুক্ত পরিষেবা দেওয়ার সুযোগ নিয়ে এলো বর্ধমানের পশুপ্রেমী সংস্থা ভয়েস ফর দ্য ভয়েসলেস। আগামী ১৫ আগষ্ট হ্যাস ট্যাগ 'ফ্রীডম ০.২' নামে একটি নতুন ওয়েবসাইটের উদ্বোধন করতে চলেছে এই সংস্থা। সংস্থার সম্পাদক অভিজিত মুখার্জি জানিয়েছেন, গত প্রায় ২ বছর ধরে করোনার জেরে সাধারণ মানুষ নানাভাবে অসহায় অবস্থার শিকার হয়ে পড়েছেন। তবুও মানুষের সমস্যা সমাধানে অনলাইন চিকিৎসার বহু সুযোগ খুলে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু সবথেকে বেশি সমস্যার মধ্যে পড়ছে অসহায় এই সমস্ত পশু, পাখিরা। অনেক সময় ইচ্ছা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির বিধিনিষেধের জেরে অবকেই পশু পাখিদের চিকিৎসা করানোর সঠিক সুযোগ পাচ্ছেন না। বরং এই পশুদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে তৈরি হচ্ছে নানান প্রতিবন্ধকতা।

কিন্তু এবার আর এই অসুবিধা থাকছে না। অভিজিৎ মুখার্জি জানিয়েছেন, তাঁরা যে ওয়েবসাইট চালু করতে চলেছেন তাতে কেবলমাত্র এই রাজ্যই নয়, ভারতবর্ষ এবং প্রতিবেশী বাংলাদেশের মানুষও এই সুবিধা পাবেন। তিনি জানিয়েছেন, তাঁদের এই ওয়েবসাইটে গিয়ে নির্দিষ্ট পশু, পাখির কি কি সমস্যা তা জানালেই দ্রুততার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট পশু চিকিৎসকের সঙ্গে তাঁদের অনলাইনে যোগাযোগ করিয়ে দেওয়া হবে। এব্যাপারে ইতিমধ্যেই বাংলার নামীদামী পশু চিকিৎসকদের সঙ্গে তাঁদের কথাও হয়ে গেছে। তাঁরাও অত্যন্ত আগ্রহ প্রকাশ করেছেন অভিনব এই ব্যবস্থায়। খোদ ভয়েস ফর দ্য ভয়েসলেস সংস্থার অফিসে ডাঃ রাহুল দেব মুখার্জির তত্ত্বাবধানে এই পরিষেবা প্রাথমিক পর্যায়ে শুরু করা হচ্ছে বলে অভিজিৎ বাবু জানিয়েছেন।

অভিজিৎ বাবু জানিয়েছেন, করোনার জেরে পশু চিকিৎসকরাও ইচ্ছা থাকলে বিভিন্ন দিকে যেতে পারছেন না। কিন্তু এই ওয়েবসাইটের ফলে তাঁরা নিজের জায়গায় বসেই চিকিৎসা পরিষেবা দিতে পারবেন। তিনি জানিয়েছেন, এই পরিষেবা সম্পূর্ণ বিনামূল্যেই তাঁরা দেবেন। কোনোভাবেই এব্যাপারে অর্থ গ্রহণ করা হবে না। প্রসঙ্গত, তিনি জানিয়েছেন, তাঁদের ভয়েস ফর দ্য ভয়েসলেসের সোশ্যাল মিডিয়ায় রয়েছেন প্রায় ১ লক্ষ ৬ হাজার সদস্য। 

যার মধ্যে প্রায় ৩১ হাজার সদস্যই রয়েছেন বাংলাদেশের। তাই প্রতিবেশী বাংলাদেশকে এই পরিষেবায় যুক্ত করা হয়েছে। অভিজিতবাবু জানিয়েছেন, আগামী ১৫ আগষ্ট থেকে তাঁরা এই ওয়েবসাইট চালু করছেন। ইতিমধ্যেই এব্যাপারে অনলাইনে প্রচারও শুরু করা হয়েছে। প্রথম দিকে চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়া দিতে শুরু হলেও ধাপে ধাপে তাঁরা আইনী সহায়তাও দেবেন। সেক্ষেত্রে বিশিষ্ট আইনজীবীরা থাকবেন পরামর্শদাতা হিসাবে।

0 Comments: