Headlines
Loading...
মন্তেশ্বরে এক ব্যক্তিকে খুন করে সমাধিস্থ করে দেওয়ার অভিযোগ, মাটি খুঁড়ে দেহ উদ্ধার পুলিশের

মন্তেশ্বরে এক ব্যক্তিকে খুন করে সমাধিস্থ করে দেওয়ার অভিযোগ, মাটি খুঁড়ে দেহ উদ্ধার পুলিশের


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,মন্তেশ্বর: এক ব্যক্তিকে খুন করে
সেই ঘটনাকে স্বাভাবিক মৃত্যু বলে প্রচার করে দেহ সমাধিস্থ করে দেওয়ার অভিযোগ কে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল মন্তেশ্বর থানার বনপুরগ্রামে। পরিবারের
লোকেদের অভিযোগের ভিত্তিতে মন্তেশ্বর ব্লকের বনপুরগ্ৰামের নালার পারের সেই কবর থেকে মৃতদেহ তুলে ময়না তদন্তে পাঠালো মন্তেশ্বর থানার পুলিশ। ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক আলোড়ন ছড়িয়েছে বুধবার বিকেলে।

এদিন মন্তেশ্বর থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেহটিকে উদ্ধার করে। পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কিছুদিন আগে ঝাড়খণ্ড থেকে বেশ কিছু শ্রমিক হাসান শেখের মাঠে ধান কাটার কাজ করতে এসেছিলেন, তাদের সাথেই কাজ করছিলেন মন্তেশ্বরের শিয়ালমারা গ্রামের ফিলমন কিসকু নামে এক ব্যক্তি। গত সোমবার চাষীর নিকট থেকে মজুরি বাবদ টাকা পাওয়ার পর প্রচণ্ড নেশা করে ফিলমন ও তার সঙ্গীরা। এরপরই মঙ্গলবার সকালে ফিলমন মারা যায়। তাঁর সঙ্গীরা জানায়, মদ্যপ অবস্থায় হার্ট অ্যাটাক হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। এরপরই তাঁর বন্ধুরাই সমাধিস্থ করে দেয় ফিলমনের দেহকে। অন্যদিকে ছেলে বাড়ি ফিরছে না দেখে ফিলমনের পরিবার মন্তেশ্বর থানায় পুরো ঘটনার বিষয় জানায়।

ঘটনার তদন্ত শুরু করে মন্তেশ্বর থানার পুলিশ। কাটোয়া থানার অন্তর্গত নন্দীগ্রাম এলাকা থেকে বাবু সোম নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে মন্তেশ্বর থানার পুলিশ। ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদের পর বুধবার বিকেলে ওই এলাকা থেকে ফিলমনের দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান তাকে আক্রোশবশত খুন করে এই ঘটনাকে স্বাভাবিক মৃত্যু হিসেবে চালানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্তে নেমেছে মন্তেশ্বর থানার পুলিশ।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});