728x90 AdSpace

Latest News

Thursday, 6 May 2021

ফের রাজনৈতিক সংঘর্ষে নিহত কেতুগ্রামের যুবক, জেলা জুড়ে অব্যাহত তৃণমূল সমর্থকদের হামলা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: জেলাজুড়ে ফলাফল পরবর্তী হিংসা অব্যাহতই। এদিকে, একদিকে যখন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দোপাধ্যায় কড়াহাতে রাজনৈতিক সংঘর্ষ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন, এমনকি কর্মীদের সংযত আচরণ করার নির্দেশ দিয়েছেন তার পরেও খেলা হবে শ্লোগান দিয়ে গোটা জেলা জুড়েই চলছে বিক্ষিপ্তভাবে তৃণমূলের হামলা। বুধবার তৃণমূল বিজেপি সংঘর্ষে পূর্ব বর্ধমান জেলায় ফের আরও একজনের মৃত্যু হল। মৃতের নাম বলরাম মাঝি (২০)। পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামের শ্রীপুরের বাসিন্দা। 


মৃতের মা টুম্পা মাঝির অভিযোগ, তৃণমূলের আশ্রিত দুষ্কৃতকারীরা ৪মে রাতে লাঠি, বাঁশ নিয়ে তার স্বামী মৃত্যুঞ্জয় মাঝির উপর চড়াও হয়। ছেলে বলরাম মাঝি বাবাকে বাঁচাতে গেলে ওই দুষ্কৃতিরা ছেলের মাথায় আঘাত করে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে প্রথমে কেতুগ্রামের কান্দরা ও পরে কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় বুধবারই তাকে বর্ধমানের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় চিকিৎসার জন্য। বুধবার রাতে বলরাম মাঝির মৃত্যু হয়।


 টুম্পা মাঝি জানিয়েছেন, তাঁদের কেউই রাজনৈতিক দলের সাথে যুক্ত নন। কিন্তু তাঁরা বিজেপিকে ভোট দিয়েছেন এই সন্দেহে তাঁদের উপর আক্রমণ চালায় তৃণমূল দুষ্কৃতিরা। এই ঘটনায় ছেলের মৃত্যুর জন্য যারা দায়ী তাদের কঠোরতম শাস্তি দাবী করেছে তিনি। টুম্পা মাঝি জানিয়েছেন, তাঁর স্বামী চাষাবাদ করেন। কোনো রাজনীতি করেন না। তাঁর ছেলে একটি কাপড়ের দোকানে কাজ করত। টুম্পাদেবী জানিয়েছেন, ভোটের ফলাফল ঘোষণার পরই গোটা শ্রীপুর গ্রামে ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়েছে তৃণমূল সমর্থকরা। তাঁর বাড়িতে ঢুকে লুটপাট এবং ভাঙচুর চালানো হয়েছে। 


 অন্যদিকে রাজনৈতিক মহলের অভিযোগ, অনেক ক্ষেত্রেই তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষ ঘটলেও তাকে বিজেপি তৃণমূল আখ্যা দেওয়া হচ্ছে। বৃহস্পতিবার সকালে বর্ধমান থানার নেড়োদিঘী, ভোতারপাড় এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের একটি বাহিনীর বিরুদ্ধে তৃণমূলেরই অপর একটি গোষ্ঠীর ওপর আক্রমণ চালানোর অভিযোগ উঠল। এই ঘটনায় কমল সেখ এবং সেখ আসাদুল নামে দুই তৃণমূল কর্মী গুরুতর জখম হয়েছেন। তাঁদের বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খোদ তৃণমূলেরই একটি অংশ বর্ধমান ১নং ব্লকের জায়গায় জায়গায় এই হামলা চালানোয় তৃণমূলকেই বদনাম করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই হামলাকারীরাই বুধবার সন্ধ্যায় বর্ধমান ১নং ব্লকের কপিবাগান এলাকায় হামলা চালায় বলে অভিযোগ উঠেছে। নেড়োদিঘীর এই ঘটনায় তৃণমূল কংগ্রেসের ১৪জনের নামে বর্ধমান থানায় লিখিত অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে। 


এদিকে, এরই পাশাপাশি বর্ধমান ২নং ব্লকের বৈকুণ্ঠপুর ২নং গ্রাম পঞ্চায়েতের এক পঞ্চায়েত সদস্যার বিরুদ্ধে প্রকাশ্য বাজার এলাকায় বিজেপি সমর্থক এক মহিলাকে সকলের সামনে কানধরে উঠবোস করানোর অভিযোগ উঠেছে। এমনকি ওই মহিলার মেয়ের সামনেই মাকে এই কাজ করতে বাধ্য করা হয় বলে অভিযোগ। এই ঘটনাকে ঘিরে রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এক মহিলা তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্যার এই কীর্তির ভিডিও ভাইরাল হয়ে গেছে। অভিযোগ উঠেছে, ওই বিজেপি মহিলা কর্মী ফলাফল ঘোষণার আগে রীতিমত কয়েকজন তৃণমূল কর্মীকে হুমকি দেন। তাঁর বিরুদ্ধে মারধর করারও অভিযোগ উঠেছে। আর তারই পাল্টা বদলা নিতেই এদিন ওই তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্যা বাজার করতে আসা এই মহিলাকে কানধরে উঠবোস করান এবং তাঁকে হুমকিও দেন বলে অভিযোগ।
ফের রাজনৈতিক সংঘর্ষে নিহত কেতুগ্রামের যুবক, জেলা জুড়ে অব্যাহত তৃণমূল সমর্থকদের হামলা
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top