Headlines
Loading...
কেতুগ্রামে তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্য খুন, ব্যাপক উত্তেজনা

কেতুগ্রামে তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্য খুন, ব্যাপক উত্তেজনা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,কেতুগ্রাম: রাজ্যে ভোট গণনা পরবর্তী হিংসা অব্যাহত। পূর্ব বর্ধমানের রায়না, জামালপুরের পর এবার কেতুগ্রাম। রাজনৈতিক সংঘর্ষের বলি এবার তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্য। সোমবার গভীর রাতে ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামে। অভিযোগ, বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের হামলায় প্রাণ গিয়েছে ওই প্রৌঢ়ের। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, সোমবার রাত ৯ টা নাগাদ কেতুগ্রামের মালগ্রামে বিজেপি ও তৃণমূলের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। স্থানীয় তৃণমূল সূত্রে জানা গেছে, আগরডাঙ্গা পঞ্চায়েত সদস্য শ্রীনিবাস ঘোষ(৫৪) ধানকাটার কাজের শ্রমিক জোগারের জন্য রাতে একটি পাড়ায় যাচ্ছিলেন। সেই সময় বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা লাঠিসোঁটা ও টাঙি নিয়ে তাঁর ওপর চড়াও হয়। শ্রীনিবাসকে কোপানো হয়। তাঁকে বাঁচাতে গিয়ে আরও দুই তৃণমূল কর্মী জখম হন। তড়িঘড়ি তাঁদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে ওই পঞ্চায়েত সদস্যকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসক। ঘটনার পর উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে মোতায়েন করা হয় ব়্যাফ ও বিশাল পুলিশ বাহিনী।

যদিও তৃণমূলের অভিযোগ অস্বীকার করেছে কেতুগ্রামের বিজেপি প্রার্থী মথুরা ঘোষ। তিনি জানান, ভোটের ফল ঘোষণার পর থেকেই তৃণমূল আশ্রিত দুস্কৃতীরা বিজেপির কর্মী সমর্থকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অত্যাচার, ভাঙচুর শুরু করেছে। মালগ্রামে তাদের দলের কর্মীরা রবিবার রাত থেকেই গ্রামছাড়া। তাহলে বিজেপি কর্মীরা কী করে হামলা করল? মথুরাবাবুর দাবি, তৃণমূলের কিছু বহিরাগত লোকজনের হামলাতেই ওই পঞ্চায়েত সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। দোষীদের ধরতে তল্লাশি শুরু হয়েছে।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});