Headlines
Loading...
দেশী বিদেশী মদ নিয়ে ব্যাপক হানাদারী পূর্ব বর্ধমান আবগারী দপ্তরের

দেশী বিদেশী মদ নিয়ে ব্যাপক হানাদারী পূর্ব বর্ধমান আবগারী দপ্তরের


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: করোনা মহামারির সময় তুঙ্গে উঠেছে দেশী বিদেশী মদের চাহিদা। চোরাগোপ্তা মদ বিক্রি যেমন চলছে তেমনি শহর থেকে গ্রামাঞ্চলে চোলাই মদেরও রমরমা বাজার তুঙ্গে উঠেছে। চলতি করোনা পরিস্থিতির মাঝেই যাতে কোনোভাবেই বিষমদের প্রভাবে কোনো মৃত্যু না হয় তারজন্য এবার অতিরিক্ত সতর্কতা নিল পূর্ব বর্ধমান জেলা আবগারী দপ্তর। 

দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সারা বছর ধরেই আবগারী দপ্তরের উদ্যোগে জায়গায় জায়গায় অবৈধ চোলাই মদ তৈরীর বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হয়। কিন্তু করোনার এই মহামারীর সময় এতবেশি মদের চাহিদা বেড়েছে যে গ্রামাঞ্চলেও চোলাই মদ তৈরীর কারবার বেড়েছে। তাই চলতি সময়ে অতিরিক্ত গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে অবৈধ চোলাই মদের কারবারকে বন্ধ করার জন্য। জেলা আবগারী দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, বর্ধমান সদর আবগারী দপ্তর সোমবার হানা দিয়ে বর্ধমান থানার বিজয়রাম কুড়েপাড়া, কেশরাপাড়া প্রভৃতি এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে ৪৫লিটার অবৈধ চোলাই। উদ্ধার হয়েছে ৫২০ লিটার বিদেশী মদ। 

এছাড়াও গত ৭দিনে অভিযান চালিয়ে বিজয়রাম, ইদিলপুর, গুডসেড রোড, হরিনারায়ণপুর, কালীগ্রাম, কালীগ্রাম বাবুপাড়া, কাঞ্চননগর উদয়পল্লী, এগ্রিকালচার ফার্ম সংলগ্ন এলাকা, ঝিঙুটি, প্যামড়া, পুতুণ্ডা, হাটকাণ্ডা প্রভৃতি এলাকা থেকে ৭টি কেস রুজু করা হয়েছে। উদ্ধার হয়েছে ১৮০লিটার আইডি, ১৯০০ লিটার বিদেশী মদ এবং  ৮টি বড় মদ তৈরীর হাঁড়ি। জেলা আবগারী দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এই অভিযান লাগাতার চলবে। এমনকি শহরাঞ্চলে চোরাগোপ্তা যে সমস্ত কারবারী গোপনে মদের কালোবাজারি করছে তাদের উপরেও নজর রাখছে আবগরী দপ্তর বলে সূত্রের খবর। 
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});