728x90 AdSpace

Latest News

Monday, 3 May 2021

মমতা ফ্যাক্টর আর নিজের ক্যারিসমায় বাজিমাত খোকনের


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: প্রত্যাশিত ভাবেই বর্ধমান দক্ষিণ বিধানসভা আসনটিতে তৃণমূল কংগ্রেস জয়ী হয়েছে। যদিও এই জয় এবার সহজ ছিল না। কারণ একাধিক। প্রথমত প্রবল গেরুয়া হওয়ার প্রভাব, বিজেপির তাবড় তাবড় কেন্দ্রীয় ও রাজ্য স্তরের নেতাদের একের পর এক বড় বড় জনসভা, প্রচার, মিছিল এরই পাশপাশি খোদ তৃণমূলের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব। অন্যদিকে প্রায় আচমকাই খোকন দাস কে এই কেন্দ্রে দল প্রার্থী ঘোষণা করার পর এই বিধানসভা কেন্দ্রের দলের একাধিক গুরুত্বপূর্ন নেতা নেত্রীরা কার্যত প্রার্থীর হয়ে প্রচার থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়।


 এমনকি প্রার্থী খোকন দাস জানিয়েছেন, নির্বাচনী প্রচারের সময় অনেকটাই কম পাওয়া গিয়েছে এবার। এরই পাশপাশি এবার তৃণমূলের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলে বিজেপি তাদের দলের সদ্য প্রাক্তন সভাপতি সন্দীপ নন্দীকে প্রার্থী করে এই কেন্দ্রে। আবার সংযুক্ত মোর্চার পক্ষ থেকে প্রার্থী দেওয়া হয় প্রয়াত সিপিএম নেতা প্রদীপ তায়ের মেয়ে পৃথা তাকে। ফলে বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রে তৃণমূলের জয় পাওয়া নিয়ে দলেরই একাংশের মধ্যেই সংশয় তৈরি হয়। এরপরও খোদ প্রার্থী খোকন দাস প্রথম থেকেই জেতার ব্যাপারে একশ শতাংশ নিশ্চিত ছিলেন। আর তাই প্রচারের প্রথম দিন থেকেই বর্ধমান শহরের ৩৫টি ওয়ার্ডের অলিগলি চষে ফেলেন তৃণমূল প্রার্থী ঘরের ছেলে খোকন। 


প্রচারে বেরিয়ে তিনি মানুষকে একটাই বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন - 'ভরসা রাখুন, কাঞ্চননগরের মতোই গোটা শহর তথা দক্ষিণ বিধানসভার উন্নয়ন করে দেখিয়ে দেবো।' স্বাভাবিকভাবেই ভোটের ফল ঘোষণার পর দেখা গেছে বর্ধমানের মানুষ শেষমেষ উন্নয়নের প্রতিশ্রুতিতেই ভরসা রেখেছেন। ফলাফল ঘোষণার পর দেখা গেছে বিজেপি প্রার্থী সন্দীপ নন্দীর থেকে খোকন দাস ৭৮৩৮ টি ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছে। 


উল্লেখ্য, বর্ধমান দক্ষিণ বিধানসভা আসনটি বর্ধমান পৌর এলাকার ৩৫টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত। গত লোকসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্র থেকে তৃণমূল প্রার্থী বিজেপি প্রার্থীর থেকে মাত্র ১৩২০ভোটে এগিয়ে ছিলেন। ৩৫টি ওয়ার্ডের মধ্যে ২১টি ওয়ার্ডে তৃণমূল পিছিয়ে ছিল। মাত্র ১৪ টি ওয়ার্ডে লিড পেয়েছিলো তৃণমূল কংগ্রেস। আর এবার বিধানসভা নির্বাচনের নিরিখে সেই সংখ্যার কিছুটা উন্নতি হলেও ফলাফল ঘোষণার পর ওয়ার্ড ভিত্তিক ভোট প্রাপ্তির বিচারে তৃণমূল ১৮টি ওয়ার্ডে জিতে গেলেও বাকি ১৭টি ওয়ার্ডে বিজেপির প্রাপ্ত ভোটের তুলনায় পিছিয়ে গেছে।


 ১,২,৩,৪,৫,৯,১০,১৪,১৫,১৮,২০,২৩,২৬,২৯,৩১,৩২ এবং ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে খোকন দাস বিজেপির থেকে বেশি ভোট পেলেও  ৬,৭,৮,১১,১২,১৩,১৬,১৭,২১,২২,২৪,২৫,২৭,২৮,৩০,৩৪ এবং ৩৫নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপির প্রাপ্ত ভোটের থেকে পিছিয়ে পড়েছেন খোকন দাস। অর্থাৎ ১৮টি ওয়ার্ডে ভোট প্রাপ্তির নিরিখে তৃণমূল বিজেপির থেকে ১৫৬৮৮ ভোট যেমন বেশি পেয়েছে, তেমনই অন্যদিকে ১৭টি ওয়ার্ডে বিজেপি প্রার্থী তৃণমূলের থেকে ৭৮৫০ টি ভোট বেশি পেয়ে এগিয়ে রয়েছে। ফলে খোকন দাস তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিজেপির সন্দীপ নন্দীর থেকে মোট ৭৮৩৮ ভোট বেশি পেয়ে এই কেন্দ্র থেকে জয়যুক্ত হয়েছেন। 


এক্ষেত্রে তৃণমূলের প্রার্থী খোকন দাসের প্রাপ্ত মোট ভোটের সংখ্যা ৯০১৬৬ এবং বিজেপির প্রার্থী সন্দীপ নন্দীর প্রাপ্ত ভোটের সংখ্যা ৮২৩২৮। সংযুক্ত মোর্চার পৃথা তা মোট ভোট পেয়েছেন ২৩০৫৬ টি। উল্লেখযোগ্য ভাবে নোটা তে ভোট পড়েছে ৩৬৯৭টি। ওয়ার্ড ভিত্তিক ফলাফলের নিরিখে দেখা যাচ্ছে, এই কেন্দ্রের আওতায় সব থেকে কম ভোটের ব্যবধানে তৃণমূল এগিয়ে আছে ১নম্বর ওয়ার্ডে। মাত্র ৩৩ টি ভোটে। অন্যদিকে সব থেকে বেশি ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে আছে ১৯নম্বর ওয়ার্ড। এই ওয়ার্ডে তৃনমূল বিজেপির প্রার্থীর থেকে ২৯৯০ টি ভোট বেশি পেয়েছেন।

এক ঝলকে দেখে নিন বর্ধমান দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের ওয়ার্ড ভিত্তিক চূড়ান্ত ফলাফল।



মমতা ফ্যাক্টর আর নিজের ক্যারিসমায় বাজিমাত খোকনের
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top