Headlines
Loading...
মদ্যপ অবস্থায় প্রতিবেশীকে মারধর করার ঘটনায় গ্রেপ্তার মেমারী স্টেশনের সহকারী ষ্টেশন মাষ্টার, চাঞ্চল্য

মদ্যপ অবস্থায় প্রতিবেশীকে মারধর করার ঘটনায় গ্রেপ্তার মেমারী স্টেশনের সহকারী ষ্টেশন মাষ্টার, চাঞ্চল্য


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,মেমারী: সহকারী ষ্টেশন মাষ্টারের কোয়ার্টারের সামনে তাঁরই প্রতিবেশী এক যুবকের বাইক রাখাকে কেন্দ্র করে মদ্যপ অবস্থায় মারধরের অভিযোগ উঠল ওই আধিকারিকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে মেমারী ষ্টেশন এলাকায়। মেমারী থানার পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে সহকারী ষ্টেশন মাষ্টারকে। ধৃতের নাম রাহুল ঘোষ। 

প্রতিবেশী তথা রেলকর্মী মনোজ শর্মার ছেলে মনীশ শর্মা জানিয়েছেন, শুক্রবার রাত দশটা নাগাদ মেমারী রেল স্টেশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার রাহুল ঘোষের কোয়ার্টারের সামনে একটি মোটর বাইক রাখা ছিল। রাহুল ঘোষ তাঁর কোয়ার্টারের সামনে রাখা বাইকটিকে ফেলে দেন। মনীশ তাঁকে কারন জিজ্ঞাসা করতেই আচমকা তার উপরে চড়াও হয়ে মারধর শুরু করেন রাহুল ঘোষ। সেই সময় রাহুল ঘোষ মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন বলে দাবী করেছেন মনীশ শর্মা। এই সময় রাহুল ঘোষ এর বাবা কোয়ার্টার থেকে বেরিয়ে এসে চেলাকাঠ দিয়ে মনিশ শর্মার মাথায় মাথায় আঘাত করেন। 

মনোজ শর্মার ছেলেকে মারধর করছে দেখে তার দিদি ও বোন তাকে বাঁচাতে গেলে তাদেরও মারধর করা হয়। অভিযোগ, রাহুল ঘোষ চুলের মুঠি ধরে গালে চড় থাপ্পড় মারে মনীশের দিদি ও বোনকে। এমনকি প্রতিবেশীরাও বাধা দিতে গেলে তাদেরও গায়ে হাত তোলেন অভিযুক্ত অ্যাসিস্ট্যান্ট স্টেশন মাস্টার। এই ঘটনায় রাতেই মেমারি থানা থেকে পুলিশ অভিযুক্ত রাহুল ঘোষকে গ্রেফতার করে। 

শনিবার সকালে পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রুজু করে বর্ধমান আদালতে পাঠানো হয় তাঁকে। আহত মনিশ শর্মাকে মেমারী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তার মাথায় তিনটে সেলাই পড়ে। যদিও এব্যাপারে রাহুল ঘোষকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি কোনো কথাই বলতে চাননি। শনিবার আদালতে তোলা হলে বিচারক তাঁকে তিনদিনের জন্য বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});