Headlines
Loading...
গলসির রাইপুরে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় গ্রেফতার দুই

গলসির রাইপুরে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় গ্রেফতার দুই


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,গলসি: মঙ্গলবার সকালে গলসির রাইপুরে রফিকুল শেখের নির্মিয়মান বাড়িতে মজুত বোমা বিস্ফোরণের ঘটনার তদন্তে নেমে কয়েকঘন্টার মধ্যেই গলসি থানার পুলিশ দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করলো। ধৃত ব্যক্তিদের বাড়ি ঘটনাস্থল রাইপুরের মণ্ডলপাড়ায়। ধৃত ব্যক্তিদের নাম সুধ কালো ওরফে আলিম মন্ডল, বয়স ৫৪ এবং সুকুর মন্ডল, বয়স ৫০ বছর।


 উল্লেখ্য, রবিবার রাতে গলসি ১ব্লকের আটপাড়ায় বোমা বিস্ফোরণের পর ফের মঙ্গলবার সকালে পাশের গ্রাম রাইপুরে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় জেলা পুলিশ প্রশাসন রীতিমত নড়েচড়ে বসে। রবিবার রাতেই আটপাড়ায় যার বাড়ির পাশেই বিস্ফোরণ ঘটেছিল সেই বাড়ির মালিক শেখ ফটিককে গ্রেপ্তার করে গলসি থানার পুলিশ। আর আজ মঙ্গলবার সকাল ১১টা নাগাদ রাইপুরে রফিকুল শেখের নির্মিয়মান বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় অভিযানে নেমে স্থানীয় মণ্ডলপাড়ার ৫০উর্দ্ধ দুই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে ভোটের মুখে গলসির আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখার কাজ করেছে বলেই মনে করছেন এলাকার সাধারণ মানুষ।


এদিকে সম্প্রতি খোদ বর্ধমান শহর সহ জেলার বিভিন্ন প্রান্তে ভোটের মুখে বোমা উদ্ধার এবং বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় পুলিশি নিস্ক্রিয়তাকেই দায়ী করছেন বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। ইতিমধ্যেই সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী থেকে বিজেপির পূর্ব বর্ধমান জেলার বিভিন্ন কেন্দ্রের প্রার্থীরা অভিযোগ করেছেন ভোটে অশান্তি সৃষ্টি করার জন্য বর্ধমান শহর সহ বহু জায়গায় বোমা মজুত করা হচ্ছে। সেক্ষেত্রে বিরোধীদের অভিযোগের তীর মূলত শাসক তৃণমূলের দিকেই। অন্যদিকে তৃণমূলের পক্ষ থেকে সরাসরি জানানো হয়েছে, নির্বাচন কমিশন, কেন্দ্রীয়বাহিনী, জেলা পুলিশ তাদের নিজেদের কাজ করছে। কোথায়, কে বা কারা বোম মজুত করছে সেটা প্রশাসন দেখবে। বরং শাসকদল তৃণমূলের পক্ষ থেকে পাল্টা বিরোধীদের বিরুদ্ধেই অশান্তি সৃষ্টি করার জন্য পরিকল্পনা করার অভিযোগ আনা হয়েছে। কার্যত পঞ্চম ও ষষ্ঠ দফা ভোটের আগে বারবার পূর্ব বর্ধমানের বিভিন্ন প্রান্তে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় রাজনৈতিক উত্তেজনা চরমে উঠছে বলে ওয়াকিবহাল মহলের মত।


0 Comments: