Headlines
Loading...
বর্ধমানের নবাবহাটে মৃতদেহ নামিয়ে দিয়ে টাকা পয়সা নিয়ে চম্পট দিল অ্যাম্বুলেন্স

বর্ধমানের নবাবহাটে মৃতদেহ নামিয়ে দিয়ে টাকা পয়সা নিয়ে চম্পট দিল অ্যাম্বুলেন্স


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: ভোটে ব্যস্ত প্রশাসন। আর এরই মাঝে বর্ধমানের নবাবহাট জাতীয় সড়কের পাশে প্রায় চার ঘন্টা রাস্তার পাশেই পড়ে রইলো মৃতদেহ। পঞ্চম দফা ভোটের দিনেই এক অমানবিক ছবি ধরা পড়ল বর্ধমানে। ঘটনার বিষয়ে জানতে পারা গেছে, উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুর থেকে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল নদীয়ায়। মৃত ব্যক্তির নাম প্রকাশ সরকার বয়স( ৩৫)। বাড়ি নদীয়া জেলার ভীমপুর থানার মহেশপুর গ্রামে।

মৃত ব্যক্তির আত্মীয় দিপালী সরকার জানান, তিনি বিহারে থাকেন। তার কাছে ফোন আসে যে প্রকাশ সরকার মানে তাঁর দাদা মারা গেছেন দুর্ঘটনায়
উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরে। তড়িঘড়ি তিনি গোরক্ষপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে যান। সেখানে গিয়ে দেখেন তার দাদা মারা গেছেন। সেখান থেকে একটা অ্যাম্বুলেন্স ভাড়া করেন ২৭ হাজার টাকায়। এরপর অ্যাম্বুলেন্সে করে মৃত দাদাকে  নিয়ে তিনি নদীয়ার মহেশপুরে গ্রামের বাড়ির উদ্দেশ্যে বেরিয়ে পড়েন। তিনি অভিযোগ করেছেন, বর্ধমানের নবাবহাট এলাকায় আসার পর ওই অ্যাম্বুলেন্স চালক তাদের মারধর করে কাগজপত্র ছিনিয়ে নিয়ে মৃতদেহ এ্যাম্বুলেন্স থেকে নামিয়ে পালিয়ে যায়। তাদের কাছে বাকি টাকা যা ছিল সমস্ত কিছু কেড়ে নেয় ওই অ্যাম্বুলেন্সের চালক।

দীপালি সরকার জানিয়েছেন, সকাল দশটা থেকে মৃত দাদাকে নিয়ে এইভাবে পড়ে রয়েছেন। কেউ সাহায্য করতে এগিয়ে আসেননি। স্থানীয় এক যুবক জিয়াউর রহমান জানান, তিনি দেখতে পান এক ভদ্রমহিলা মৃত এক ব্যক্তিকে নিয়ে বসে আছেন। জিজ্ঞাসা করতেই তিনি বলেন, তাদেরকে মারধর করে এম্বুলেন্স চালক মৃতদেহ নামিয়ে পালিয়ে যায়। এক লরি চালক অংকন পালও বিষয়টি দেখেন। তড়িঘড়ি বর্ধমান থানায় বিষয়টি জানানো হয়। জিয়াউর বাবু জানিয়েছেন, তিনি চান এই ভাবে মৃতদেহটি পড়ে থাকা সত্যি অমানবিক ঘটনা। দ্রুত উনার বাড়ি পৌঁছানোর ব্যবস্থা করুক প্রশাসন।

0 Comments: