Headlines
Loading...
চলতি সপ্তাহ থেকেই ভোটের প্রচারে ঝড় তুলতে বর্ধমানে আসতে চলেছেন মোদি, শাহ, নাড্ডা, মিঠুন, আদিত্যনাথ সহ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক

চলতি সপ্তাহ থেকেই ভোটের প্রচারে ঝড় তুলতে বর্ধমানে আসতে চলেছেন মোদি, শাহ, নাড্ডা, মিঠুন, আদিত্যনাথ সহ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: আট দফার ভোটের দুদফার ভোট সম্পন্ন। আগামী ৬ এপ্রিল তৃতীয় দফা এবং ১০তারিখ চতুর্থ দফার ভোট। আর তারপরই পঞ্চম দফার ভোট সংগঠিত হবে। এই পর্বে পূর্ব বর্ধমানের প্রথম দফা ভোটে খণ্ডঘোষ, রায়না, বর্ধমান দক্ষিণ, বর্ধমান উত্তর, জামালপুর, মেমারী, মন্তেশ্বর এবং কালনা বিধানসভা ভোট অনুষ্ঠিত হবে। শনিবার পঞ্চম দফা নির্বাচনের মনোনয়ন প্রত্যাহারের সময়সীমা শেষ হয়েছে। বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রের বিজেপি গোঁজ প্রার্থী স্মৃতিকান্ত মণ্ডল এবং বর্ধমান উত্তর বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি গোঁজ প্রার্থী গণেশ মাঝি তাঁদের মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। ফলে কার্যতই বিজেপির সদর জেলায় আর কোনো গোঁজ প্রার্থী থাকল না। আগামী ১৭ এপ্রিল বর্ধমানে প্রথম দফা তথা পঞ্চম দফার ভোট অনুষ্ঠিত হতে চলেছে।


আর পঞ্চম দফার এই ভোটের জন্য এবার শুরু হতে চলেছে হাই ভোল্টেজ নির্বাচনী প্রচার সাইক্লোন – বলছেন বিজেপি, তৃণমূল নেতারা। বিজেপিরই এক জেলা নেতা জানিয়েছেন, আগামী ৫ এপ্রিল থেকে এই জেলায় ভোল বদল হতে চলেছে নির্বাচনী প্রচারের। গোটা জেলায় গেরুয়া ঝড় ছাড়া আর কিছুই নজরে আসবে না। ওই জেলা নেতা জানিয়েছেন, গেরুয়া ঝড় নয়, সাইক্লোন সৃষ্টি হবে গোটা জেলা জুড়ে - যেখানে খড়কুটোর মতই উড়ে যাবে জোড়া ফুল। বিজেপি ওই সূত্রে জানা গেছে, খোদ দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আসতে পারেন আগামী ১২ এপ্রিল। তার আগে ৭ ও ৯ এপ্রিল বর্ধমানে আসার সম্ভাবনা অমিত শাহ এবং জেপি নাড্ডার। এছাড়াও নাম শোনা যাচ্ছে যোগী আদিত্যনাথ থেকে অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীর। ফলে দিন যতই এগিয়ে আসছে ততই এবার বর্ধমান জেলায় ভোটের পারদ চড়তে চলেছে।


 আবার শুধু বিজেপি বা গেরুয়া শিবিরের সাইক্লোনই নয়, রীতিমত গেরুয়া ঝড়কে সামাল দিতে প্রস্তুত জোড়া ফুল শিবিরও। কাটোয়ার তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, আগামী ১৭ এপ্রিল ষষ্ঠ দফার নির্বাচনী প্রচারে কাটোয়া স্টেডিয়ামে জনসভা করতে আসতে চলেছেন খোদ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দোপাধ্যায়। তার আগে ওইদিনই গলসি বিধানসভার তৃণমূলের প্রার্থী নেপাল ঘরুই এর সমর্থনে বুদবুদের তিলডাঙ্গায় জনসভা করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে। যদিও তার আগে পঞ্চম দফার নির্বাচনে তাঁকে নিজের নিজের কেন্দ্রে পাবার জন্য ব্যাকুল হয়ে উঠেছেন দলীয় প্রার্থীরা। পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সভাধিপতি তথা রায়না বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী শম্পা ধাড়া জানিয়েছেন, দিদি তাঁর কেন্দ্রে প্রচারে আসবেন। এখনও দিনক্ষণ ঠিক না হলেও তিনি আশা করছেন সঠিক সময়েই তিনি আসবেন। 






শুধু মমতা বন্দোপাধ্যায়ই নয়, মঙ্গলকোটে অথবা ভাতারে আসতে পারেন অভিষেক বন্দোপাধ্যায়। বর্ধমানে রোড শো করতে পারেন মমতা বন্দোপাধ্যায়, অভিনেতা - অভিনেত্রীদের অনেকেই। তবে এখনই তার কোনো চুড়ান্ত তালিকা তৈরী না হওয়ায় তৃণমূল শিবিরে রয়েছে অস্বস্তিও। অন্যদিকে, ক্রমশই যেভাবে গোটা পূর্ব বর্ধমান জেলা জুড়েই বিজেপি নিজেদের গোষ্ঠী কোঁদলকে মিটিয়ে ভোটযুদ্ধে নেমে পড়ছেন এবং তাঁদের জয়ী করার লক্ষ্যে হেভিওয়েট নেতৃত্বরা বর্ধমান জেলাকে বেছে নিয়ে প্রচারে আসতে চলেছেন তাতে বাড়তি অক্সিজেন পেতে শুরু করেছে বিজেপি প্রার্থীরা বলে দলের নেতা কর্মীরা মনে করছেন।

















এদিকে বিজেপি এবং তৃণমূল সূত্রে জানা গেছে, আগামী ১৩ এপ্রিল বর্ধমানের দক্ষিণ দামোদর এলাকায় নির্বাচনী প্রচারে আসছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। ওইদিন তিনি সরঙ্গার কুকরা এলাকায় তিনি সভা করবেন বলে বিজেপি সূত্রে জানা গেছে। একইসঙ্গে খণ্ডঘোষ এবং রায়না এলাকায় মিঠুন চক্রবর্তী এবং শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে এসেও প্রচার করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে বিজেপির দলীয় সূত্রে জানা গেছে। অন্যদিকে, সোমবার মেমারীতে তৃণমূল প্রার্থীর সমর্থনে নির্বাচনী সভা করতে আসছেন অনুব্রত মণ্ডল।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});