Headlines
Loading...
সৌমিত্র খাঁয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় মহিলার ওপর এ্যাসিড হামলার অভিযোগ ঘিরে উত্তপ্ত খণ্ডঘোষ

সৌমিত্র খাঁয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় মহিলার ওপর এ্যাসিড হামলার অভিযোগ ঘিরে উত্তপ্ত খণ্ডঘোষ


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: ভোটের মুখে ব্যাপক উত্তেজনা ও চাঞ্চল্য সৃষ্টি হল বর্ধমানের খণ্ডঘোষ এলাকা জুড়ে। খণ্ডঘোষের বেড়ুগ্রামের বাসিন্দা মাম্পি ব্যানার্জ্জী নামে এক মহিলার ওপর এ্যাসিড হামলার ঘটনায় রীতিমত উত্তপ্ত হয়ে উঠল খণ্ডঘোষ। মাম্পি ব্যানার্জ্জীর দাদা চা গ্রামের বাসিন্দা রাধারমণ গোস্বামী এব্যাপারে খণ্ডঘোষ থানায় লিখিত অভিযোগও দায়ের করেছেন। যদিও এই অভিযোগে বিজেপির বিরুদ্ধে কোনো কিছু লেখা হয়নি বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। 


মাম্পি ব্যানার্জ্জী মৌখিক অভিযোগ করেছেন, তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের একজন সমর্থক। গত ২৭ জানুয়ারী খণ্ডঘোষের বেড়ুগ্রামের বিজেপির একটি সভায় যোগ দিতে আসেন সৌমিত্র খাঁ। তিনি জানিয়েছেন, ওইদিন বিকাল ৪টেয় বেডুগ্রাম দীঘিরপাড় এলাকায় বিজেপির সভা থেকে রীতিমত অশালীন ভাষায় সৌমিত্র খাঁ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করেন। এমনকি মহিলাদের সম্পর্কেও তিনি কুরুচিকর মন্তব্য করেন। এতে মহিলাদের যথেষ্টই সম্মানহানি হয়। একইসঙ্গে তিনি নিজেও এই ঘটনায় অপমানিতবোধ করেন। মাম্পি ব্যানার্জ্জী জানিয়েছেন, শুধু এটাই নয় সৌমিত্র খাঁ ওই সভা থেকেই হিন্দু দেবদেবীদের সম্পর্কে কুরুচিকর মন্তব্য করে এলাকায় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিকে নষ্ট করার উস্কানি দিয়েছিলেন। এই ঘটনায় এলাকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হবার পরিবেশ তৈরী হয়। 


আর তাই এই ঘটনায় সৌমিত্রবাবুর বিরুদ্ধে যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নেবার আবেদন জানিয়ে সৌমিত্রবাবুর বিরুদ্ধে 
মাম্পি ব্যানার্জি অভিযোগ দায়ের করেন। উল্লেখ্য, এই ঘটনায় খণ্ডঘোষ থানায় সৌমিত্র খাঁয়ের বিরুদ্ধে ৫০৪,৫০৫ (এ) (বি) এবং ৫০৯ ধারায় কেসও রুজু হয়। মাম্পি ব্যানার্জ্জী জানিয়েছেন, শনিবার রাতে তিনি তাঁর বাড়ির সামনে যখন দাঁড়িয়েছিলেন তখন মুখ ঢাকা ৪জন আচমকাই তাঁর কাছে এসে তাঁর গায়ে এ্যাসিড ছুঁড়ে পালিয়ে যায়। যেহেতু তিনি তৃণমূল সমর্থক এবং সৌমিত্র খাঁয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন, তাই এই ঘটনায় বিজেপিই দায়ী বলে দাবী করেছেন মাম্পি দেবী।


 এদিকে, এই ঘটনার পরই তাঁকে দ্রুত বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। খণ্ডঘোষ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অপার্থিব ইসলাম জানিয়েছেন, খণ্ডঘোষ বিধানসভা জুড়ে বিজেপির কোনো অস্তিত্ব নেই। তাঁর নিজেদের পায়ের তলার মাটি তৈরী করতে চাইছে। আর তাই এই ধরণের সন্ত্রাস সৃষ্টি করছে। তিনি জানিয়েছেন, দলীয় স্তরেও তাঁরা এই ঘটনার খোঁজখবর নিচ্ছেন। অন্যদিকে, খণ্ডঘোষের বিজেপি নেতা অরূপ ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, তিনিও এই ঘটনার কথা শুনেছেন। তবে রাতের অন্ধকারে কে বা কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তা পুলিশ তদন্ত করে বার করুক। তিনি জানিয়েছেন, এই ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক এবং অনভিপ্রেত। তবে তাঁর বিশ্বাস এই ঘটনার সঙ্গে বিজেপি দায়ী নয়। ওই পরিবারের সঙ্গে অন্য কোনো বিবাদের জেরেই এই ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

0 Comments: