Headlines
Loading...
বর্ধমান আদালতের লকআপে ২ মাস ধরে খাবার পাচ্ছেন না আসামীরা

বর্ধমান আদালতের লকআপে ২ মাস ধরে খাবার পাচ্ছেন না আসামীরা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক, পূর্ব বর্ধমান: বর্ধমান আদালতের লকআপে থাকা আসামীরা গত প্রায় ২ মাস ধরে কোনো খাবারই পাচ্ছেন না। বারবার উর্ধতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেও কোনো সুফল না মেলায় সোমবার হিউম্যান রাইটস প্রোটেকশন এ্যাসোসিয়েশনের বর্ধমান জেলা কমিটির পক্ষ থেকে জেলা জজ পার্থ সারথী সেনের কাছে স্মারকলিপি দেওয়া হল। এদিন এই সংগঠনের সভাপতি তথা আইনজীবী পীযূষ ব্যানার্জ্জী জানিয়েছেন, গত প্রায় ২ মাস ধরেই আদালতের লকআপে আসা আসামীদের খাবার বন্ধ হয়ে গেছে। যা চুড়ান্ত অমানবিক বিষয়। ইতিপূর্বে তাঁরা এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনাও করেছেন। কিন্তু কোনো সুরাহা না হওয়ায় এদিন তাঁরা জেলা জজ সহ সিজেএম এবং জেলাশাসকের কাছেও এই দাবীপত্র তাঁরা দিয়েছেন।


 তিনি জানিয়েছেন, অবিলম্বে আসামীদের খাবার দেবার আবেদন জানানো হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, বর্ধমান 
কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার থেকে যে সমস্ত আসামীদের সকাল ১০টার মধ্যে আদালতের লকআপে নিয়ে আসা হয়, অনেক সময়ই তাঁরা ফেরত যান বিকাল ৫টার পর। এই সময়কালে তাঁরা কোনো খাবার পাচ্ছেন না। শুধু জেলখানার আসামীরাই নন, গোটা জেলার অন্যান্য থানা এলাকা থেকেও যাঁদের বিভিন্ন অপরাধের জন্য গ্রেপ্তার করে নিয়ে আসা হয় এই লকআপে তাঁরাও খাবার পাচ্ছেন না। অথচ এই খাবার দেবার দায়িত্ব সরকারীভাবেই রয়েছে। 


তিনি জানিয়েছেন, এদিন জেলা জজের সঙ্গে এই গুরুতর অবস্থা সম্পর্কে আলোচনা করার পর তিনি দ্রুত ব্যবস্থা নেবার কথা জানিয়েছেন। জানা গেছে, যে হোটেল থেকে এই খাবার সরবরাহ করা হত, সেই হোটেল দীর্ঘদিন টাকা না পাওয়ার কারণেই তিনি খাবার দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন। যদিও এব্যাপারে পীযূষবাবু জানিয়েছেন, এই বিষয়টি তাঁদের কাছে বিচার্য্য নয়। তাঁরা চান আসামী হলেও তাঁদের মানবাধিকার যেন সুরক্ষিত থাকে।


(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});