Headlines
Loading...
বর্ধমান ষ্টেশনের নিরাপত্তা জোরদার করতে চালু হল ইণ্টিগ্রেটেড সিকিউরিটি সিস্টেম

বর্ধমান ষ্টেশনের নিরাপত্তা জোরদার করতে চালু হল ইণ্টিগ্রেটেড সিকিউরিটি সিস্টেম


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক, পূর্ব বর্ধমান: ভোট যতই এগিয়ে আসছে ততই রাজ্য জুড়ে উদ্বোধন এবং বিভিন্ন প্রকল্পের শিলান্যাসের বহর বাড়ছে। গত কয়েকদিনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের হাত ধরে গোটা রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় জেলায় একাধিক জনমুখী প্রকল্পের উদ্বোধন হয়েছে। আর ভোটারদের কাছে পৌঁছাতে এবার উদ্বোধন পর্বে এগিয়ে এল কেন্দ্রের বিজেপি সরকারও। শুক্রবার দিল্লী থেকে ভার্চুয়াল মাধ্যমে রাজ্যের বেশ কয়েকটি রেল প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। এদিন কেবলমাত্র পূর্ব বর্ধমান জেলাতেই বেশ কয়েকটি রেল ষ্টেশনে প্রকল্পের উদ্বোধন করেন তিনি। কিন্তু স্বাভাবিকভাবেই সংশ্লিষ্ট এলাকার তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক ও সাংসদদের হাজির থাকার কথা থাকলেও তাঁরা কার্যত কেউই ছিলেন না বলে জানা গেছে।


 এদিন বর্ধমান ষ্টেশনে যাত্রী সুরক্ষা এবং রেল সম্পত্তির নিরাপত্তা আঁটোসাঁটো করতে চালু করা হল ইণ্টিগ্রেটেড সিকিউরিটি সিস্টেম। রেল সূত্রে জানা গেছে, এই সিস্টেম চালু হবার ফলে ষ্টেশনে ঢোকা এবং বার হবার সময় থাকছে জোরদার সিকিউরিটি চেকিং-এর ব্যবস্থা। থাকছে মেটাল ডিটেক্টরযুক্ত গেট ছাড়াও হ্যাণ্ড হেল্ড মেটাল ডিটেক্টর। থাকছে লাগেজ স্ক্যানার মেশিন। রেল সূত্রে জানা গেছে, এই প্রকল্প রূপায়ণ করতে রেলের খরচ হয়েছে ২.৩ কোটি টাকা। রেলসূত্রে জানানো হয়েছে এই নিরাপত্তা ব্যবস্থা চালু হওয়ায় যাত্রীদের গতিবিধি যেমন আরও ভালভাবে নজরদারী চালানো যাবে, তেমনি রেল সম্পত্তি রক্ষণাবেক্ষণের ক্ষেত্রেও নজরদারী আরও ভাল হবে। বর্ধমান ষ্টেশনে এই অনুষ্ঠানে বিজেপির বর্ধমান দুর্গাপুর লোকসভা আসনের সাংসদ সুরেন্দ্রজিত সিংহ অহলুবালিয়া এবং বর্ধমান পুর্বের সম্প্রতি তৃণমূল ছেড়ে যাওয়া সাংসদ সুনীল মণ্ডলের নাম থাকলেও তাঁরা কেউই হাজির ছিলেন না। একইসঙ্গে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় এবং দেবশ্রী চৌধুরীর নাম থাকলেও তাঁরাও কেউ হাজির ছিলেন না। 


বর্ধমান ষ্টেশনে ইণ্টিগ্রেটেড সিকিউরিটি সিস্টেম ছাড়াও এদিন উদ্বোধন করা হয়েছে বর্ধমান -হাওড়া মেন শাখার নিমো ষ্টেশনে ১.২ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি ফুট ওভারব্রীজ। এছাড়াও বর্ধমান ষ্টেশনে একটি চলমান সিঁড়িরও উদ্বোধন করা হয়েছে। এজন্য খরচ হয়েছে ৯১ লক্ষ টাকা। এদিন পূর্ব রেলের হাওড়া ডিভিশনে ডিআরএম সুনিত নারুলা জানিয়েছেন, রেল দপ্তর যাত্রী সুরক্ষা এবং যাত্রী সুবিধার জন্য লাগাতার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তারই অঙ্গ হিসাবে একাধিক সুযোগ সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে। তিনি জানান, গোটা বর্ধমান ষ্টেশন জুড়েই ক্লোজড সার্কিট টিভি লাগানো হচ্ছে। 


ইতিমধ্যেই বর্ধমান ষ্টেশনে ৪টি চলমান সিঁড়ি লাগানো হয়েছে। আরও ৪টি লাগানো হবে। এছাড়াও আরও ২টি লিফট লাগানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, হাওড়া ডিভিশনের আরও কয়েকটি ষ্টেশনে লিফট, চলমান সিঁড়ি লাগানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, এদিন ডিআরএম জানিয়েছেন, বর্ধমান ষ্টেশনের দুপাশে কালনা রেল গেটের ওপর এবং তালিত রেলগেটের ওপর ফ্লাইওভার তৈরীর জন্য রেল দপ্তর স্কেচ তৈরীর কাজ শুরু করে দিয়েছে। কিন্তু যেহেতু এই প্রকল্পগুলি রাজ্য সরকারের সঙ্গে কেন্দ্রীয় রেল দপ্তরের অর্ধেক অর্ধেক অর্থানূকূল্যে তৈরী হয় – তাই এখনও রাজ্য সরকারের সঙ্গে কোনো মৌ স্বাক্ষর হয়নি।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});