Headlines
Loading...
বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউআইটির কর্মীরা আমরণ অনশনে,চাঞ্চল্য

বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউআইটির কর্মীরা আমরণ অনশনে,চাঞ্চল্য


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউ আই টি বিভাগের কর্মীরা কয়েকদফা দাবীকে সামনে রেখে আমরণ অনশনে নামার ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ালো। এদিন ইউআইটি বিভাগের প্রফেসর সৌম্য দাস জানিয়েছেন, দীর্ঘ প্রায় ১বছর ২ মাস অতিক্রান্ত হয়ে গেলেও তাঁদের নতুন পে কমিশনের সুযোগ এখনো দেওয়া হয়নি। এমনকি এব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক্সিকিউটিভ কাউন্সিলের বৈঠকেও গোটা বিষয়টি নিয়ে ধোঁয়াশায় রাখা হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, বারবার আবেদন জানানো হলেও কোনো কাজ না হওয়ায় তাঁরা বাধ্য হয়েই ইউ আই টি-র সমস্ত কর্মীরা এই আমরণ অনশনে নামতে বাধ্য হয়েছেন। যদিও তার জন্য ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনার যাতে কোনো সমস্যা না হয় সে ব্যাপারেও তাঁরা সতর্ক রয়েছেন।


 এরই পাশাপাশি এদিন কর্মীরা অভিযোগ করেছেন, বেশ কিছুদিন ধরেই ইউ আই টির অধ্যক্ষ এমন কিছু অর্থনৈতিক সুবিধা ভোগ করছেন তা অনৈতিক। তাঁরা অভিযোগ করেছেন এখনও পে কমিশনের বিষয় সম্পর্কে কোনোরকম সুস্পষ্টতা না এলেও অধ্যক্ষ নতুন পে কমিশনের স্কেল অনুযায়ী তাঁর প্রিন্সিপ্যাল এলাউন্স নিচ্ছেন। এমনকি তিনি ঘরভাড়া বাবদ টাকা নিলেও থাকছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসনে। কর্মীরা জানিয়েছেন, এব্যাপারে তাঁরা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সহ সমস্ত আধিকারিকদের কাছেই তাঁরা তথ্য প্রমাণ সহ অভিযোগ জানিয়েছেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে জানানো হয়েছে এব্যাপারে একটি এথিক্যাল কমিটি গঠন করা হয়েছে। 


কিন্তু তাঁদের প্রশ্ন যাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি তাঁর স্বপদেই বহাল রয়েছেন। এমতবস্থায় এথিক্যাল কমিটির ফলাফল আদপেই কতটা ফলপ্রসু হবে তা নিয়েও তাঁরা চিন্তিত। এদিকে, কর্মীদের এই আমরণ অনশনকে ঘিরে গোটা বিশ্ববিদ্যালয় জুড়েই চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। উল্লেখ্য, সম্প্রতি ইউআইটি পরিচালনায় বিশ্ববিদ্যালয় আর্থিক পরিচালনার দায়ভার ইউ আই টি-র হাতেই সঁপে দিচ্ছেন বলে খোদ ইউআইটির অধ্যক্ষ চিঠি দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে। তা নিয়ে বিস্তর জলঘোলাও শুরু হয়। তারপরেই ফের ইউআইটির অন্দরে কর্মী অসন্তোষ এবং আমরণ অনশনকে ঘিরে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

1 comment