Headlines
Loading...
বর্ধমানে চোর সন্দেহ খোদ কালেক্টরেট চত্বরে গণপিটুনি, খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে আক্রান্ত সংবাদ মাধ্যমও

বর্ধমানে চোর সন্দেহ খোদ কালেক্টরেট চত্বরে গণপিটুনি, খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে আক্রান্ত সংবাদ মাধ্যমও


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: মঙ্গলবার খোদ বর্ধমান জেলাশাসক করণ এলাকার মধ্যে চোর সন্দেহে এক ব্যক্তিকে বেধড়ক মারধর করার ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল প্রশাসনিক চত্বরে। ঘটনার খবর খবর সংগ্রহ করতে গেলে মোটর ভেহিকেলস ওনার্স রিপ্রেজেনটেটিভ এ‌্যাসোসিয়শনের সদস্যরা সাংবাদিকদের ওপর চড়াও হওয়ার ঘটনায় পরিস্থিতি আরো উত্তপ্ত হয়ে উঠল।


 জানা গেছে, এদিন দুপুরে বর্ধমান কালেক্টরেট ভবনের নিচের তলায় পরিবহণ দপ্তরে আসেন এক মহিলা। সেই সময় গোটা এলাকায় ভিড় ছিল উপচে পড়ার মত। আচমকাই ওই মহিলা চোর চোর করে চিৎকার শুরু করে দেন। তাঁর ব্যাগ চুরি হয়েছে বলে চিৎকার করতে থাকেন। এই সময় কালেক্টরেট ভবনের গেট দিয়ে এক ব্যক্তি ছুটে পালাতে গেলে নিরাপত্তারক্ষীরা তাঁকে আটকায়। কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই অভিযোগ, মোটর ভেহিকেলস ওনার্স রিপ্রেজেনটেটিভ এ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা ওই ব্যক্তিকে নিরাপত্তারক্ষীদের হাত থেকে ছিনিয়ে নিয়ে গণপিটুনি দিতে থাকেন। প্রশাসনিক চত্বরে উত্তেজনার খবর পেয়ে সেখানে হাজির হন চিত্র সাংবাদিক সেখ রতন। তিনি ঘটনার ছবি তুলতে গেলে তাঁর ওপর আক্রমণের উদ্যোগ নেয় ওই সদস্যরা। সেখ রতনের হাত থেকে মোবাইল কেড়ে নিয়ে ছবি মুছেও দেওয়া হয়। তাকে ধাক্কাধাক্কিও করা হয় বলে অভিযোগ। 


ইতিমধ্যে গোলমালের খবর পেয়ে খোদ সদর মহকুমা শাসকের নিরাপত্তারক্ষীরা ওই ব্যক্তিকে গণপিটুনির হাত থেকে রক্ষা করে মহকুমা শাসকের অফিসে নিয়ে যান। এদিকে, গণপিটুনি ও সাংবাদিক নিগ্রহের খবর পেয়ে অন্যান্য সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে হাজির হলে অনভিপ্রেত এই ঘটনার জন্য ক্ষমা চেয়ে নেন অভিযুক্ত সদস্যরা। খোদ কালেক্টরেট চত্বরে চোর সন্দেহে এক ব্যক্তিকে গণপিটুনি দেওয়ার এই ঘটনায় রীতিমত আলোড়ন শুরু হয়েছে। যদিও খবর পেয়ে বর্ধমান থানার পুলিশ ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

0 Comments: