Headlines
Loading...
স্বামী বিবেকানন্দের মূর্তির নীচে মুখ্যমন্ত্রীর নামাঙ্কিত ফলক তুলে ফেলা নিয়ে সরগরম মেমারীর রাজনীতি

স্বামী বিবেকানন্দের মূর্তির নীচে মুখ্যমন্ত্রীর নামাঙ্কিত ফলক তুলে ফেলা নিয়ে সরগরম মেমারীর রাজনীতি


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,মেমারী: বিবেকানন্দের মূর্তির নীচে থাকা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামের ফলক ভাঙ্গার অভিযোগ ঘিরে এবার রাজনৈতিক তরজা শুরু হল মেমারীর চকদিঘী মোড় এলাকায়। শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে অভিযোগের তীর ছোঁড়া হয়েছে বিজেপির দিকে। যদিও পাল্টা বিজেপি দাবী করেছে এটা তৃণমূল কংগ্রেসেরই গোষ্ঠী কোঁদলের ফল। এই ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়েছে বামেরাও। তাঁরাও দাবী করেছেন তৃণমূলের অন্তর্কলহের জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে। 

জানা গেছে, বুধবার সকালে হঠাতই দেখা যায় চকদিঘী মোড়ে থাকা বিবেকানন্দের মূর্তির নিচে মুখ্যমন্ত্রীর নামাঙ্কিত ফলক কে বা কারা খুলে ফেলার চেষ্টা করেছে। এরপরই আসরে নামে তৃণমূল। এদিন সকালে মেমারি শহর তৃণমূল কংগ্রেস সহ-সভাপতি আশীষ ঘোষ দস্তিদার একটি ফেসবুক পোস্ট করেন। যেখানে তিনি লেখেন, বিবেকানন্দ মূর্তির উপরে আঘাত। এই ঘটনার পরই তৃণমূল নেতা-কর্মীরা নিয়ে আসেন গঙ্গা জল। গঙ্গা জল দিয়ে বিবেকানন্দ মূর্তিকে স্নান করানোর পর পুনরায় ওই ফলক লাগানোর উদ্যোগ নেন। এই ঘটনায় এদিন মেমারী থানায় তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে মেমারী থানার পুলিশ। 

নাম না করেই এদিন তৃণমূল নেতা সুপ্রিয় সামন্ত বিজেপির দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে বলেছেন, যারা দিবা স্বপ্ন দেখছে বাংলায় ২০০আসন নিয়ে ক্ষমতায় আসবে এই ধরনের ঘৃণ্য কাজ তাদেরই। এদিকে, এই ফলক তুলে ফেলা নিয়ে যখন মেমারী শহর জুড়ে রাজনৈতিক তরজা তুঙ্গে উঠেছে সেই সময় একটি সিসিটিভি ফুটেজ থেকে দেখা গেছে ওই মূর্তির নিচে বসে রয়েছেন এক ভবঘুরে মানষিক ভারসাম্যহীন মহিলা। এই কাজ তারই কিনা তা নিয়েও মেমারী থানার পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

0 Comments: