Headlines
Loading...
 বর্ধমানের কাশেমপুর গ্রামে উরস মেলাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামে বিবাদ, গ্রামবাসীদের মারধরের অভিযোগ

বর্ধমানের কাশেমপুর গ্রামে উরস মেলাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামে বিবাদ, গ্রামবাসীদের মারধরের অভিযোগ


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: বর্ধমান ১নং ব্লকের বেলকাশ গ্রাম পঞ্চায়েতের কাশিমপুর গ্রামে উরস মেলাকে ঘিরে দুই গ্রামের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। জানা গেছে, প্রতিবছরের মত এবারও এই উরস মেলার আয়োজন করে গ্রামবাসীরা। যথারীতি পাঁচ দিনের এই মেলা শুরু হবার পর চতুর্থ দিনে পাশের গ্রাম ঢোলনার কিছু যুবক আচমকাই এসে এই মেলায় আগুন লাগানোর চেষ্টা করে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত পুলিশ প্রশাসনের তৎপরতায় ধরা পড়ে যায় কালপ্রিটরা। মারধরও করা হয় দুষ্কৃতীদের। আটক করে বর্ধমান থানায় নিয়ে যাওয়া হয় ওই দুষ্কৃতীদের। কিন্তু তাদের ছেড়েও দেওয়া হয়। 

কাশেমপুর গ্রামের বাসিন্দা সেখ সানোয়ার জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরেই কাশেমপুর, ঢোলনা এই দুই গ্রাম মিলিতভাবে এই উরস মেলার আয়োজন করে আসছে। এবারে ঢোলনা গ্রামের ছেলেরা এই মেলায় যোগ দেয়নি। তাঁদের বারবার আবেদনও করা হয়। কিন্তু তারপরেও মেলার চতুর্থদিনের মাথায় আচমকাই এসে তাঁরা মেলায় আগুন লাগাতে যায়। সেই সময় কর্তব‌্যরত পুলিশ কর্মীদের হাতে জনা পাঁচেক ছেলে ধরাও পড়ে। কিন্তু তাঁদের গ্রেপ্তার না করেই ছেড়ে দেওয়া হয়। আর তারা গ্রামে ফিরে যেতেই শুরু হয়েছে নতুন করে উত্তেজনা। 

সেখ সানোয়ার জানিয়েছেন, ঢোলনা গ্রামের ওপর দিয়েই তাঁদের যাতায়াত করতে হয়। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরেই তাঁদের গ্রামের ছেলেদের দেখতে পেলেই বেধড়ক মারধর করা হচ্ছে। বেশ কয়েকজন জখমও হয়েছেন। এই অত্যাচারের জন্যই তাঁরা বুধবার বর্ধমান থানায় লিখিত অভিযোগও দায়ের করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, অবিলম্বে এই অত্যাচার বন্ধ না হলে যে কোনো মূহূর্তেই জনরোষ আছড়ে পড়তে পারে। এদিকে, এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আশপাশের কয়েকটি গ্রামে তীব্র উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে সামনেই বিধানসভা ভোট। ভোটের আগে এই গ্রাম্য বিবাদকে কেন্দ্র করে গোটা এলাকায় রীতিমত আতংক দেখা দিয়েছে।

0 Comments: