Headlines
Loading...
সাতগেছিয়ার সভা থেকে বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ সোহম,সুজাতার

সাতগেছিয়ার সভা থেকে বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ সোহম,সুজাতার


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান:নরেন্দ্র দামোদর মোদি নিজেই করোনা ভাইরাস। ৬ বছর আগে ভারতবর্ষে ঢুকেছেন। তার হাত থেকে বাঁচতে সকলকেই তৃণমূলের মাস্ক পড়তে হবে। বুধবার বর্ধমানের মেমারীর সাতগেছিয়ায় কেন্দ্রের কৃষি আইন বাতিলের দাবীতে আয়োজিত সভায় বক্তব্য রাখতে এসে এভাবেই কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরোধিতায় সুর চড়ালেন বাংলার চলচ্চিত্র অভিনেতা সোহম চক্রবর্তী। 

এদিন সোহম বলেন, বাইরে থেকে কেউ এসে আমাদের শেখাবেন আমরা কি করব? বাংলার সংস্কৃতি বাংলার মানুষ ভালভাবেই জানেন। আলাদা করে তাকে শেখাতে হবে না। দলবদলের প্রসঙ্গে এদিন সোহম বলেন, যারা দলবদল করছে তারা চিরকালই তাই করবে। তিনি বলেন, তৃণমূল একটা বড় সংসার। সংসারে থাকতে গেলে খুটোমুটি লাগবেই। কিন্তু তাই বলে কি সংসারটাকে অন্যের হাতে তুলে দিই আমরা। একইভাবে বাংলাকে বিজেপি নামক প্রমোটারের হাতে তুলে দেবেন না।


এদিন এই সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে সদ্য বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে আসা সুজাতা মণ্ডল জানিয়েছেন, বিজেপি হাতির দাঁত। একটা দেখানোর একটা খাবার। তিনি এদিন বলেন, ১০ বছর ধরে যার ঘর করেছি, সেই লোকটাই (সৌমিত্র খাঁ) তিন তালাক দিয়েছে তাঁকে। অথচ ১০ বছর ধরে তাঁর জীবনসঙ্গী ছিলেন তিনি। সুজাতাদেবী এদিন বলেন, যেদিন মোদি সরকার তিন তালাক প্রথা তুলে দেবার আইন করেছিল সেদিন তিনি খুশী হয়েছিলেন। কিন্তু তাঁর স্বামী যেদিন তাঁকে তালাক দিল সেদিন তিনি বুঝলেন বিজেপির মুখ আর মুখোশ আলাদা। 


এদিন সুজাতাদেবী বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে বলেন, যারা তৃণমূলের চোর জোচ্চোর, টাকা লুটেছে তারা কোন্ জাদুবলে বিজেপিতে এসে ঢুকে শুদ্ধ হয়ে গেল – এটাও তিনি এখনও বুঝতে পারেননি। সুজাতাদেবী জানিয়েছেন, নিজের জীবন দিয়ে তিনি বুঝেছেন বিজেপি ঘর ভাঙানোর দল। তারা ক্ষমতায় এলে কত মেয়ের ঘর ভাঙবে সেটাই বড় কথা। তাই বিজেপিকে কোনোভাবেই একটাও ভোট দেবেন না। এদিন এই সভায় অন্যান্যদের মধ্যে হাজির ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া, মেমারীর বিধায়িকা নার্গিস বেগম, জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি রাসবিহারী হালদার প্রমুখরাও।

0 Comments: