728x90 AdSpace

Latest News

Saturday, 19 December 2020

বর্ধমানের লক্ষীপুরমাঠে প্রাণঘাতী হামলার ৭২ঘন্টা পরেও অধরা অভিযুক্তরা, থানার সামনে বিক্ষোভে পরিবারের লোকজন


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: ঘটনার পর ৭২ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও বর্ধমান শহরের লক্ষীপুর মাঠ এলাকায় বিনোদ সাউ নামে এক ব্যক্তির উপর প্রাণঘাতী হামলার ঘটনায় জড়িতদের কেউ গ্রেফতার না হওয়ায় শনিবার ক্ষোভে ফেটে পড়লেন বিনোদ সাউয়ের পরিবারের সদস্যরা সহ এলাকার বাসিন্দারা। এদিন বিকেলে বর্ধমান সদর থানার সামনে বিসি রোডের উপর বসে পরে দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভও দেখায় তারা। বিনোদ সাউয়ের ভাই রাজনারায়ন সাউ জানিয়েছেন, তার দাদাকে যারা রাতের অন্ধকারে প্রাণে মেরে ফেলার চেষ্টা করল তারা ঘটনার পরেও এলাকায় দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছে। পুলিশ এখনো কোনো অভিযুক্তকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এমনকি ঘটনায় যুক্ত সন্দেহে অমিত শর্মা নামে একজনকে পুলিশ আটক করলেও পরে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। 

রাজনারায়ন সাউ এদিন বর্ধমান থানায় অভিযোগ করে জানিয়েছেন, দুষ্কৃতীরা তাকেও প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। বাড়ির মহিলারা আতংকে রয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, বিনোদ সাউয়ের শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত উদ্বেগজনক। এরই মধ্যে শুত্রুবার তার দাদাকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়। বাধ্য হয়ে বিনোদ সাউকে শহরের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। রাজনারায়ন জানিয়েছেন, বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চূড়ান্ত অব্যবস্থা এবং গাফিলতির বিরুদ্ধে শনিবার সুপারের কাছে অভিযোগ জানাতে গেলে এমএসভিপি না থাকায় অভিযোগ জমা নেওয়া হয়নি।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার রাত্রি প্রায় সাড়ে ১১টা নাগাদ বিনোদ সাউ একটি অনুষ্ঠান বাড়ি থেকে যখন নিজের বাড়ি ফিরছিলেন সেই সময় লক্ষীপুরমাঠ খাটালের কাছে ১৪-১৫জন সশস্ত্র দুস্কৃতি বিনোদের ওপর প্রাণঘাতী হামলা চালায়। লোহার রড, তরোয়াল, পিস্তল, ছুরি, লাঠি, বাঁশ দিয়ে বেধড়ক মারধোর করা হয়। মারের চোটে অচৈতন্য হয়ে পড়লে দুষ্কৃতীরাই রক্তাক্ত বিনোদ সাউকে তুলে নিয়ে গিয়ে তার নিজের বাড়ির সামনে ফেলে রেখে পালায়। বাড়ির লোকেরাই বিনোদকে গুরুতর জখম অবস্থায় উদ্ধার করে বর্ধমান হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়েছিল, বিনোদ সাউয়ের মাথায়, বুকে, পেটে, পায়ে, হাতে একাধিক চোট রয়েছে। রক্তক্ষরণও হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিনোদ সাউকে খুনের চেষ্টার অভিযোগে সুরেন্দার শর্মা, অমিত শর্মা,সুমিত শর্মা, বিট্টু সিং, মিঠুন পাসোয়ান, সন্দীপ সিং এর নামে বর্ধমান থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন বিনোদ সাউয়ের স্ত্রী গীতা সাউ। আর শনিবার বিনোদ সাউয়ের ভাই রাজনারায়ন সাউ তাকেও প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে এই দুস্কৃতিরা বলে ফের অভিযোগ দায়ের করায় চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। পুলিশ সূত্রে জানতে পারা গেছে, ইতিমধ্যেই অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশ তল্লাশি শুরু করেছে। 
বর্ধমানের লক্ষীপুরমাঠে প্রাণঘাতী হামলার ৭২ঘন্টা পরেও অধরা অভিযুক্তরা, থানার সামনে বিক্ষোভে পরিবারের লোকজন
  • Title : বর্ধমানের লক্ষীপুরমাঠে প্রাণঘাতী হামলার ৭২ঘন্টা পরেও অধরা অভিযুক্তরা, থানার সামনে বিক্ষোভে পরিবারের লোকজন
  • Posted by :
  • Date : December 19, 2020
  • Labels :
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top