Headlines
Loading...
গলসির কর্মী সম্মেলনে জেলার বসে যাওয়া নেতাদের ফিরে আসার আহ্বান স্বপন দেবনাথের

গলসির কর্মী সম্মেলনে জেলার বসে যাওয়া নেতাদের ফিরে আসার আহ্বান স্বপন দেবনাথের


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,গলসি: বিধানসভার ভোট যত এগিয়ে আসছে পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সাংগঠনিক কর্মসূচির সংখ্যা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে।
একদিকে যেমন ব্লকে ব্লকে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের ব্লক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে, পাশাপাশি যুব সংগঠন এবং অন্যান্য শাখা সংগঠনের কর্মসূচির ঝাঁঝ বাড়তে শুরু করেছে। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে প্রতিটি বুথ থেকেই জয় সুনিশ্চিত করার জন্য ব্লক সম্মেলন গুলি থেকে দলীয় নেতা-কর্মীদের কাছে আবেদনও জানানো হচ্ছে। 


রবিবার বর্ধমানের গলসী ২নং ব্লক সম্মেলনে হাজির থাকতে না পারলেও জেলা সভাপতি তথা রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ফোনের মাধ্যমে আবেদন রেখেছেন, অভিমানে, অপমানিত বোধ করে যে সমস্ত কর্মী - নেতারা বসে রয়েছেন তাঁরা ফিরে আসুন সক্রিয়ভাবে। দল তাঁদের যোগ্য সম্মান দেবে। স্বপনবাবু এদিন দলীয় নেতাদের নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রীর বিজয়ার শুভেচ্ছা বার্তার কার্ড প্রতিটি ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে হবে। এদিকে দীর্ঘদিন পর দলের ব্লক সভাপতির দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া বাসুদেব চৌধুরী এদিনর কর্মী সম্মেলনে উপস্থিত না হওয়ায় বিতর্ক তৈরি হয়েছে। 


 উড়ো চটি এলাকায় এই ব্লক সম্মেলনে এদিন হাজির ছিলেন জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া, খণ্ডঘোষ বিধানসভার অন্তর্গত এই সম্মেলনে হাজির ছিলেন খণ্ডঘোষ ব্লক সভাপতি অপার্থিব ইসলাম, গলসীর বিধায়ক অলোক মাঝি, খণ্ডঘোষের বিধায়ক গলসি, জেলার কোর্ডিনেটর উজ্জ্বল পারামানিক, জেলা পরিষদের জনস্বাস্থ্য কর্মাধ্যক্ষ বাগবুল ইসলাম, সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি আশরাফউদ্দিন বাবু, ব্লক সভাপতি সুজন মন্ডল, জয়হিন্দ বাহিনীর ব্লক সভাপতি গুল মহাম্মদ মোল্লা প্রমুখরাও। 


এদিন বক্তব্য রাখতে গিয়ে জেলা পরিষদের জনস্বাস্থ্য কর্মাধ্যক্ষ বাগবুল ইসলাম জানিয়েছেন, গলসী ২ ব্লকে মোট ৮৭টি আসন। তার মধ্যে ১৫টি আসন বিরোধীদের দখলে রয়েছে। তৃণমূলের দখলে রয়েছে ৭২টি আসন। তিনি জানিয়েছেন, বড় বড় সমাবেশ নয়, বুথ স্তরের সংগঠনই যে কোনো নির্বাচনের নির্ণায়ক শক্তি। তাই বুথ স্তরে, পাড়ায় পাড়ায় বৈঠকে জোড় দিতে হবে। প্রতিটি বাড়িতে পৌঁছে সরকারের উন্নয়নের কথা বোঝাতে হবে। প্রতিটি বুথ থেকে জয়লাভ করার লক্ষ্যে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।


0 Comments: