728x90 AdSpace

Latest News

Monday, 30 November 2020

ফের বর্ধমানে সোনার দোকানে চুরি, চাঞ্চল্য


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: ভর বিকেলে বর্ধমান শহরের জনবহুল পার্কাস রোড মোড় এলাকায় একটি গহনার দোকান থেকে বেশ কিছু সোনা ও রুপোর গহনা ছিনতাই করে পালালো দুজন দুস্কৃতি। এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল শহরের ব্যবসায়ী মহলে। ঘটনার খবর পেয়ে বর্ধমান থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। গহনার দোকানের মালিক দীপান্বিতা দত্ত জানিয়েছেন, দোকানে কোনো সিসি ক্যামেরা ছিল না। পুলিশ দুস্কৃতিদের সন্ধানে তল্লাশি শুরু করেছে। 


দীপান্বিতা দত্ত জানিয়েছেন, এদিন বিকেলে অজ্ঞাত পরিচয় অবাঙালি দুই ব্যক্তি তার দোকানে আসে। তারা আরবি ও হিন্দি ভাষায় কথা বলছিল। তারা প্রথমে সোনার লকেট দেখাতে বলেন। পরে গলার হার দেখতে চায়। কিন্তু হারের সাইজ ছোট হচ্ছে বলে জানানোর সঙ্গে সঙ্গেই দোকানের চেয়ারে রাখা কিছু সোনার আংটি সমেত একটি বাক্স দুষ্কৃতীরা তুলে নেয়। এরই ফাঁকে যখন হারের বাক্সটাও তুলে নেয় তখন তাদের হাত থেকে সেটিকে টেনে নেওয়ার চেষ্টা করলে দুষ্কৃতীরা দ্রুত দোকান থেকে বেরিয়ে রাস্তায় নেমে যায়। দোকান মালিক জানিয়েছেন, তিনি চোর চোর বলে চিৎকার করতেই দুষ্কৃতীরা এরপরই একটি মোটরসাইকেল চেপে পালিয়ে যায়। 


স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, গহনার দোকানের বাইরে চ্যাচামেচি হচ্ছে দেখে প্রথমে খদ্দেরের সঙ্গে দোকান মালিকের কোনো সমস্যা হয়েছে বলে মনে করা হয়। কিন্তু দুজন ব্যক্তি মোটর সাইকেল চেপে পালিয়ে যেতেই এবং দোকান মালিক মহিলার কান্নাকাটি চিৎকারে বোঝা যায় দোকানে চুরি হয়েছে। এরপরই পুলিশ কে খবর দেওয়া হয়। যদিও কি পরিমান গহনা চুরি গেছে এবং সেগুলোর মূল্য কত সে সম্পর্কে দীপান্বিতা দেবী সঠিক ভাবে জানাতে পারেননি। তবে সোনার দোকানে সিসি ক্যামেরা না থাকায় বর্ধমান জেলা ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক বিশ্বশর চৌধুরী জানিয়েছেন, এর আগেও একাধিকবার বর্ধমানের সোনার দোকানে চুরির ঘটনায় পর প্রত্যেক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে আবেদন জানানো হয়েছিল যাতে তারা দোকানে সি সি ক্যামেরা ব্যবহার করেন। কিন্তু তারপরেও এই ঘটনায় চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল সি সি ক্যামেরার প্রয়োজনীয়তা। 
ফের বর্ধমানে সোনার দোকানে চুরি, চাঞ্চল্য
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top