Headlines
Loading...

ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: কাল থেকে শুরু হচ্ছে গোটা পূর্ব বর্ধমান জেলা জুড়ে দুয়ারে দুয়ারে রাজ্য সরকার প্রকল্প। কিন্তু আদপেই সরকারী সুযোগ জন সাধারণের দুয়ারে পৌঁছাচ্ছে না বলে এরই মধ্যে অভিযোগ তুলল বিজেপি। সোমবার পূর্ব বর্ধমান জেলাশাসক মহম্মদ এনাউর রহমান সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়েছেন, গোটা জেলা জুড়েই মঙ্গলবার থেকে কয়েকটি ধাপে রাজ্য সরকারের ১১টি প্রকল্পের ক্যাম্প করা হচ্ছে। জেলায় প্রতিটি ব্লক ছাড়াও গ্রাম পঞ্চায়েতে এই ক্যাম্প করা হবে কয়েকটি ধাপে। 


১১টি প্রকল্পের মধ্যে থাকছে স্বাস্থ্যসাথী, কৃষকবন্ধু, খাদ্যসাথী, কন্যাশ্রী, রূপশ্রী, শিক্ষাশ্রী, ঐক্যশ্রী, জাতিগত শংসাপত্র, ১০০দিনের কাজ, জয় জোহার এবং তপশিলী বন্ধু প্রকল্পের সহায়তা। জেলাশাসক জানিয়েছেন, ৪টি রাউণ্ডে ১ ডিসেম্বর থেকে ৩০ জানুয়ারী পর্যন্ত এই ক্যাম্পগুলি চালু থাকবে। গ্রামীণ এলাকায় ২১৫টি এবং পৌর এলাকায় ১১৯টি ক্যাম্প করা হবে। সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টে পর্যন্ত এই ক্যাম্প চলবে। ক্যাম্পে হাজির থাকবেন বিভাগীয় অভিজ্ঞ আধিকারিকরা।


 তিনি জানিয়েছেন, ১ ডিসেম্বর গ্রামীণ এলাকায় ১২টি এবং পৌর এলাকায় ৪টি ক্যাম্প হবে। জেলাশাসক জানিয়েছেন, প্রথম রাউণ্ডে ১ থেকে ১১ ডিসেম্বর, দ্বিতীয় রাউণ্ডে ১৫ থেকে ২৪ ডিসেম্বর, তৃতীয় রাউণ্ডে ২ থেকে ১২ জানুয়ারী এবং চতুর্থ রাউণ্ডে ১৮ থেকে ৩০ জানুয়ারী এই ক্যাম্পগুলি অনুষ্ঠিত হবে। তিনি জানিয়েছেন, সমস্ত তথ্য সম্পূর্ণভাবে জমা করার পর ১২ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে সমস্যার সমাধান করা হবে। উল্লেখ্য, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিশেষ করে সকলের জন্য স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের কথা বলে দুয়ারে দুয়ারে রাজ্য সরকার যে প্রকল্প ঘোষণা করেছেন সেক্ষেত্রে কোনো জনসাধারণের বাড়িতেই পৌঁছাচ্ছে না প্রশাসনের কর্তারা। বরং জনসাধারণকেই নির্দিষ্ট ক্যাম্পে পৌঁছে তাঁদের সমস্যা মেটাতে হবে বলে জানিয়েছেন জেলাশাসক। যাকে রীতিমত কটাক্ষ করেছে বিজেপি। 


জেলা বিজেপির এক নেতা জানিয়েছেন, সরকার বলছে দুয়ারে দুয়ারে প্রশাসন আর বাস্তবে সাধারণ মানুষকে প্রশাসনের দরজায় গিয়ে কড়া নাড়তে হবে। অপরদিকে, এদিন বর্ধমান সংস্কৃতি লোকমঞ্চে জেলার সমস্ত ত্রিস্তরের জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে এই প্রকল্পের বিষয়ে আলোচনা করেন তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি স্বপন দেবনাথ। স্বপনবাবু এদিন পরিসংখ্যান তুলে ধরে দলীয় নেতাদের জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় যে সমস্ত প্রকল্পগুলি ঘোষণা করছেন তার সুফল কত মানুষ, কত পরিবার পাচ্ছেন তার হিসাব দলীয় নেতারা এলাকায় এলাকায় তুলে ধরছেন না। এব্যাপারে দলীয় নেতাদের ব্যর্থতাই বেশি। এদিন স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প নিয়ে সমস্ত নেতা -কর্মীদের প্রতিটি বাড়ি বাড়ি যাবার নির্দেশও দেন তিনি।

0 Comments: