Headlines
Loading...
চলে গেলেন বর্ধমান জেলা কংগ্রেসের প্রাক্তন জেলা সভাপতি আভাষ ভট্টাচার্য

চলে গেলেন বর্ধমান জেলা কংগ্রেসের প্রাক্তন জেলা সভাপতি আভাষ ভট্টাচার্য


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: বেশ কয়েকদিন রোগভোগের পর বুধবার গভীর রাতে মারা গেলেন পূর্ব বর্ধমান জেলা কংগ্রেসের প্রাক্তন জেলা সভাপতি আভাষ ভট্টাচার্য। বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর। মৃত্যুকালে তিনি রেখে গেলেন স্ত্রী, ছেলে, মেয়ে-জামাই সহ দুই নাতিকে। আভাষবাবুর মৃত্যুর খবর পেয়েই প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী, সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য গভীর শোক ব্যক্ত করেছেন। 

জেলা কংগ্রেস নেতা কাশীনাথ গাঙ্গুলী জানিয়েছেন, বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন আভাষবাবু। তাঁকে বর্ধমানেরই একটি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়েছিল। সেখানেই বুধবার গভীর রাতে তাঁর মৃত্যু হয়। এদিন সকাল ১০টায় আভাষবাবুর মৃতদেহ নিয়ে আসা হয় জেলা কংগ্রেস ভবনে। প্রয়াত নেতার মরদেহে মাল্যদান করে শ্রদ্ধা জানান জেলা কংগ্রেস নেতৃবৃন্দরা।


 কাশীবাবু জানিয়েছেন, ১৯৬৩ সাল থেকে ছাত্র রাজনীতি দিয়ে রাজনীতির আঙিনায় প্রবেশ করেন কাটোয়ার মঙ্গলকোটের ছেলে আভাষ ভট্টাচার্য। পরে বর্ধমান শহরের খোসবাগানে চলে আসেন। ছিল চশমার দোকান। ১৯৬৩ সাল থেকে কংগ্রেস রাজনীতি শুরু করার পর একের পর এক আন্দোলনে অংশ নিয়ে নিজের নেতৃত্বের ক্ষমতাকে তুলে ধরেন। ৯০-এর দশকে তিনি বর্ধমান লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থীও হন। মৃত্যুর আগের দিন পর্যন্ত তিনি ছিলেন এআইসিসি সদস্য এবং প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির এক্সিকিউটিভ কমিটির সদস্যও। ছিলেন বর্ধমান জেলায় একটানা ১০ বছর জেলা কংগ্রেস সভাপতি। 


এদিন কংগ্রেস ভবনে তাঁর মরদেহে মাল্যদান করতে হাজির হয়েছিলেন জেলা কংগ্রেস সভাপতি প্রভীর গাঙ্গুলী, প্রদেশ কংগ্রেস সদস্য অভিজিত ভট্টাচার্য, জেলা যুব কংগ্রেস সভাপতি গৌরব সমাদ্দার সহ তৃণমূল কংগ্রেসের শহর সভাপতি অরূপ দাস, প্রাক্তন উপপুরপতি তৃণমূল নেতা খোন্দেকার মহম্মদ সাহিদুল্লাহ, বিজেপি নেতা শ্যামল রায় প্রমুখরাও।

0 Comments: