Headlines
Loading...
শেষমেষ অস্থায়ী কলেজ কর্মীদের অনশন মঞ্চে পৌঁছলেন জেলা প্রশাসনের কর্তারা, দাবি আদায়ে অটল অনশনকারীরা

শেষমেষ অস্থায়ী কলেজ কর্মীদের অনশন মঞ্চে পৌঁছলেন জেলা প্রশাসনের কর্তারা, দাবি আদায়ে অটল অনশনকারীরা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: কলেজের অস্থায়ী কর্মীদের সরকারি স্বীকৃতি ও ৬০ বছর পর্যন্ত কাজের সুনিশ্চয়তা এবং অন্যান্য সরকারি সুযোগ-সুবিধার দাবিতে রায়নার শ্যামসুন্দর কলেজের সামনে অস্থায়ী অশিক্ষক কর্মীদের টানা ২৭ দিনের অনশনের মাথায় অনশন প্রত্যাহারের আবেদন নিয়ে রবিবার অনশন মঞ্চে উপস্থিত হলেন পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসনের একঝাঁক কর্তা। 


উল্লেখ্য, গোটা রাজ্যে প্রায় সাড়ে ৮হাজার এবং পূর্ব বর্ধমানের ১৭টি কলেজের প্রায় ১৫০ জন অস্থায়ী অশিক্ষক কর্মী গত ৬ অক্টোবর থেকে রাজ্য জুড়ে বিভিন্ন কলেজে এই অনশন শুরু করেন। ইতিমধ্যে অনশনকারীদের অনেকে অসুস্থ হয়েও পড়েন। প্রশাসন থেকে তাঁদের চিকিৎসার ব্যবস্থাও করা হয়। তবুও নিজেদের দাবি আদায়ের লক্ষ্যে অনশন চালিয়ে যেতে থাকেন। শেষমেষ জেলা প্রশাসনের আধিকারিকদের আশ্বাস পেয়ে অনশন প্রত্যাহারের চিন্তাভাবনা শুরু করেছেন সংগঠনের সদস্যরা।


এদিন অনশন মঞ্চে উপস্থিত হয়েছিলেন, এ ডি এম (শিক্ষা) হুমায়ুন বিশ্বাস, এসডিও সুদীপ ঘোষ, এস ডি পি ও আমিনুল ইসলাম খান, বিডিও সৌমেন বণিক, রায়না থানার ওসি পুলক মন্ডল। পশ্চিমবঙ্গ কলেজ ক্যাজুয়াল এমপ্লয়িজ সমিতির পূর্ব বর্ধমান জেলা কমিটির কার্যকরী সভাপতি সৈকত নেগেল জানান, তাদের ৬০ বছর চাকরির সুনিশ্চিতকরণ এবং নিরাপত্তার দাবিতে এই  অনশনে চলছে। নির্দিষ্ট বেতন কাঠামো, সরকারি সমস্ত সুযোগ সুবিধা এবং ৩৯৯৮ এফ (p২) সরকারি আদেশ নামা পশ্চিমবঙ্গ কলেজ কেজুয়েল এমপ্লয়িজ সমিতি র মধ্যে যাতে লাগু হয় সেই জন্যই তাদের এই আন্দোলন। 


তিনি জানিয়েছেন, আগামী ৬ নভেম্বর পর্যন্ত এই অনশন চলবে। তিনি আশা প্রকাশ করেছেন, পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষা দপ্তর এবং পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাদের এই আন্দোলনে সহমত পোষণ করবেন। তিনি এও জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গ সরকার এবং শিক্ষা দপ্তর আগামী ৬ তারিখের পর যদি আমাদের এই দাবি মেনে না নেয় তাহলে আগামী দিনে তাঁরা স্বেচ্ছামৃত্যুর বরণ করবেন। 


অতিরিক্ত জেলাশাসক (শিক্ষা) হুমায়ুন বিশ্বাস বলেন, 'সমস্ত বিষয় আলাপ-আলোচনা করার পর উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে আমরা বিষয়টি জানাবো এবং আশা করছি এই দাবি সরকার লাগু করতে পারেন অর্থাৎ এদের দাবি মেনে নিতে পারেন। প্রশাসনের তরফ থেকে আমরা এই আন্দোলনকারীদের বলেছি আগামীকাল এরপর কি ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছেন অতি অবশ্যই প্রশাসন কে জানাতে।' 

পশ্চিমবঙ্গ কলেজ ক্যাজুয়াল এমপ্লয়িজ সমিতির সভাপতি মেহবুব ইলাহি আলী জানান, শান্তিপূর্ণ ভাবে তাঁরা অনশন আন্দোলন করছেন পশ্চিমবাংলার বিভিন্ন জায়গায়। তাঁরা আশা করছেন, সরকার এবং শিক্ষা দপ্তর তাদের এই দাবি অতি অবশ্যই মেনে নেবেন। তিনি আরো জানান, কোনো ভাবেই যদি সরকার তাঁদের দাবি মেনে না নেয় তাহলে আগামী দিনে রাজ্যের বিভিন্ন কলেজের গেটে তাঁরা স্বেচ্ছামৃত্যু বরণ করবেন।

0 Comments: