Headlines
Loading...
বর্ধমানের রসিকপুরে তৃণমূলের দুটি গোষ্ঠীর ঝামেলায় বোমাবাজি, উদ্ধার বোমা ও মশলা

বর্ধমানের রসিকপুরে তৃণমূলের দুটি গোষ্ঠীর ঝামেলায় বোমাবাজি, উদ্ধার বোমা ও মশলা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: তৃণমূলের দুটি গোষ্ঠীর সংঘর্ষে তীব্র উত্তেজনা ছড়াল বর্ধমান শহরের রসিকপুর এলাকায়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে পরপর বোমাবাজি, গাড়ি ভাঙচুর এবং এলাকার চিলড্রেন্স পার্ক থেকে বোমা ও বোমা তৈরির মশলা উদ্ধার হওয়ার পর বর্ধমান থানার আইসি পিন্টু সাহার নেতৃত্বে পুলিশ এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে। 

তৃণমূল কংগ্রেসের বর্ধমান জেলার অন্যতম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল রব জানিয়েছেন, এলাকায় বোমাবাজি ও উত্তেজনা সৃষ্টির পিছনে দলের নবনিযুক্ত সংখ্যালঘু সেলের জেলা সভাপতি মোহাম্মদ আশরাফউদ্দিন ই দায়ী। অন্যদিকে আব্দুল রবের অভিযোগ কে সম্পূর্ণ মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে জানিয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফউদ্দিন বাবু। 

তিনি জানিয়েছেন, আব্দুল রবের জনপ্রিয়তা এলাকায় হারিয়ে গেছে। রবের সঙ্গে দলের যে সমস্ত কর্মী কাজ করতেন তাঁরা বেশ কিছুদিন ধরে তাঁর সঙ্গে সমাজসেবামূলক নানান কাজে নিযুক্ত হয়েছেন। এমনকি জেলখানা মোড়ে দলের যে কার্যালয় ছিল সেখানেও যাচ্ছে না। ফলে বন্ধ হয়ে গেছে সেই পার্টি অফিস। আর এই হতাশা থেকেই রবের অনুগামী কিছু দুষ্কৃতী এলাকাকে অশান্ত করতে বোমাবাজি করেছে। গোটা ঘটনার অনুসন্ধান করছে পুলিশ। 

যদিও আব্দুল রব জানিয়েছেন,  আশরাফউদ্দিন বাবু জেলখানা মোড়ের তৃণমূল পার্টি অফিসকে বন্ধ করে দেওয়ার চেষ্টা করছে। বাইরে থেকে লোক নিয়ে এসে এদিন রসিকপুর ইউনাইটেড ক্লাবের সামনে বোমাবাজি করেছে। এমনকি বাবুর এনজিও অফিসের উল্টোদিকের মাঠ থেকে পুলিশ বোমা ও বোমা তৈরির মশলাও উদ্ধার করেছে। 

এদিকে ভর সন্ধ্যায় রসিকপুরে দুটি গোষ্ঠীর মধ্যে বোমাবাজি ও উত্তেজনার পরই রাস্তাঘাট ফাঁকা হয়ে যায়। বন্ধ হয়ে যায় দোকানপাট। রাতের দিকে বিশাল পুলিশ বাহিনী এলাকায় টহল শুরু করার পর পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসে। এই ঘটনায় এলাকায় চাপা উত্তেজনা রয়েছে। 

0 Comments: