Headlines
Loading...
রাস্তা থেকে মালিকবিহীন ছাগল তুলে থানায় নিয়ে এসে ঘোর বিপাকে পুলিশ

রাস্তা থেকে মালিকবিহীন ছাগল তুলে থানায় নিয়ে এসে ঘোর বিপাকে পুলিশ


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,ভাতার: এ যেন সাপের ছুঁচো গেলার মতো ব্যাপার। মালিকবিহীন চারটে ছাগল কে রাস্তা থেকে উদ্ধার করে নিয়ে এসে থানায় রাখার পর তাদের রক্ষণাবেক্ষণের ঝামেলা পোয়াতে বেজায় বিপাকে পড়েছেন পূর্ব বর্ধমানের ভাতার থানার পুলিশ।অবস্থা এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে ছাগলের মালিকের খোঁজে রীতিমত চারদিকে খবর দেওয়া হয়েছে সিভিক ভলান্টিয়ারদের মাধ্যমে। এরই মধ্যে সমস্যা আরো বেড়েছে। কারণ একটি স্ত্রী ছাগল আবার দুটো বাচ্চার জন্ম দিয়েছে। ফলে ভাতার থানার পুলিশের এখন ছাগল নিয়ে কার্যত নাজেহাল অবস্থা।


রসিকতা করে অনেকে অনেক রকম কথাই বলছেন এই ঘটনায়। কার্যত ভাতার থানার পুলিশের এখন সাপের ছুঁচো গেলার মতো অবস্থা। না পারছেন ছাগলগুলোকে ছেড়ে দিতে, আবার তাদের খাওয়া দাওয়া থেকে রাত দিন লক্ষ্য রাখার ব্যবস্থা করতেও নাজেহাল পরিস্থিতি পুলিশের। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ভাতারের বলগোনা বাজারে গত ৫ দিন আগে টহল দিচ্ছিলেন কিছু পুলিশ কর্মী। তাঁদের নজরে আসে চারটি ছাগল বলগোনা বাজারে ঘোরাফেরা করছে। কর্তব্যরত পুলিশ ছাগল গুলোর মালিকের খোঁজ করে না পেয়ে চারটি ছাগলকে নিয়ে চলে আসে ভাতার থানায়। 



উল্লেখ্য, ভাতারের বিভিন্ন জায়গায় সম্প্রতি ছাগল চুরির ঘটনা ঘটেছে। আর এই চুরির খবর ভাতার থানার পুলিশের কাছেও আসে। আর সেইজন্যই বেওয়ারিশ ভাবে ছাগলগুলোকে ঘুরতে দেখে চারটি কে নিয়ে আসা হয় ভাতার থানায়। কিন্তু এরপরই শুরু হয় সমস্যা। একে তো মালিকের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না, অন্যদিকে সারাদিন ছাগলের খাবার থেকে জলের যোগান জোগাতে হচ্ছে সময়ে সময়ে।

আর এরজন্য রীতিমতো দুজন সিভিক ভলান্টিয়ার কে দেখাশোনার দায়িত্ত্বও দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এরই মধ্যে মরার ওপর খাঁড়ার ঘায়ের মতো গতকাল একটি ছাগল আবার দুটি বাচ্চার জন্ম দিয়েছে। ফলে ছাগল নিয়ে হিমশিম অবস্থা এখন ভাতার থানার পুলিশের। পুলিশ চাইছে, যত তাড়াতাড়ি ছাগলগুলোকে তাদের মালিক এসে সঠিক প্রমান পেশ করে থানা থেকে নিয়ে যাক।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});