Headlines
Loading...
রেলের নির্দেশে স্থগিত হয়ে গেল বর্ধমানে পুরনো রেল ব্রীজ ভাঙার কাজ

রেলের নির্দেশে স্থগিত হয়ে গেল বর্ধমানে পুরনো রেল ব্রীজ ভাঙার কাজ


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: সাধারণ মানুষ এবং বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের লাগাতার আন্দোলনের জেরে  অবশেষে বর্ধমান ষ্টেশনের ওপর পুরনো রেল সেতু ভাঙার নির্দেশ স্থগিত ঘোষণা করল পূর্ব রেল। আর এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই সম্পূর্ণ কৃতিত্ত্বের দাবী করতে শুরু করেছে জেলা বিজেপি।
 

উল্লেখ্য, সম্প্রতি পূর্ব রেল পুরনো এই রেল সেতুকে ভেঙে ফেলার জন্য বিজ্ঞপ্তি জারী করে। বুধবারের মধ্যে সমস্ত রেল সেতুর জবরদখল হঠিয়ে দেবার নির্দেশও জারী করে। রেলের এই নির্দেশের ঘোষণায় রীতিমত আলোড়ন পড়ে যায় গোটা শহর জুড়েই। কারণ পুরনো এই রেল সেতুর ভগ্নাবস্থা এবং বিপদজনক অবস্থার জন্য নতুন করে সেতু নির্মাণ করে তা চালুও করে দেওয়া হয়। পরিবর্তে পুরনো সেতু দিয়ে দুচাকা ও ৩ চাকার হাল্কা যান চলাচল এবং পায়ে হাঁটা জারী থাকে।


 

কিন্তু সম্প্রতি রেলের পুরনো রেল সেতু ভেঙে ফেলার নির্দেশের ফলে যাঁরা কেবলমাত্র পুরনো সেতুকে ব্যবহার করছিলেন তাঁরা পড়েন চরম সমস্যায়। দাবী ওঠে পুরনো রেল সেতুর বিকল্প পথ তৈরী না করে পুরনো সেতুকে ভেঙে ফেলা যাবে না। আন্দোলনে নামেন জনপ্রিয় হকার্স ইউনিয়ন, এসইউসিআই, তৃণমূল কংগ্রেসও। তাঁরা অভিযোগ তোলেন, পুরনো সেতুর বদলে নতুন যে সেতু তৈরী করা হয়েছে তার উচ্চতা ও দৈর্ঘ্য হেঁটে পার হতে গেলে সমস্যায় পড়বেন বয়স্ক, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ব্যক্তি, শিশুরাও। এমনকি এখনও নতুন সেতু দিয়ে টোটো বা সাইকেল, রিক্সা প্রভৃতি চলাচলের কোনো অনুমোদন দেওয়া হয়নি। ফলে রেলের একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তে যোগাযোগের একমাত্র রাস্তা পুরনো সেতুকে বিকল্প পথ সৃষ্টি না করে ভেঙে ফেলা হলে তাতে যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙে পড়বে।

এদিকে, এসইউসিআই, তৃণমূল কংগ্রেস, জনপ্রিয় হকার্স ইউনিয়ন প্রভৃতিরা আন্দোলনে নামার পর আসরে নামে জেলা বিজেপিও। জেলা বিজেপির সভাপতি সন্দীপ নন্দীর নেতৃত্বে ৭ দফা দাবী সম্বলিত স্মারকলিপি দেওয়া হয় পূর্ব রেল কর্তৃপক্ষকে। আর তারপরেই বর্ধমান দুর্গাপুর কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ সুরিন্দরজিত সিংহ অহলুবালিয়া রেলমন্ত্রীকে একই বিষয় উল্লেখ করে চিঠি দিয়ে বিকল্প পথ না করে পুরনো সেতু না ভাঙার আবেদন জানান। আর তারপরেই সোমবার ফের বিজ্ঞপ্তি দিয়ে পূর্ব রেল জানিয়ে দিল আপাতত পুরনো রেলব্রীজ ভাঙা হচ্ছে না। 


0 Comments: