728x90 AdSpace

Latest News

Wednesday, 22 July 2020

বর্ধমান শহরে ভেঙে পড়লো ১৫০ বছরের প্রাচীন বাড়ি, শুরু পুরসভার তালিকা তৈরীর কাজ


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: হুড়মুড়িয়ে রাস্তার ওপর ভেঙে পড়ল বাড়ি। যদিও ঘটনায় হতাহতের কোন খবর নেই। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সকাল ১১টা নাগাদ বর্ধমান শহরের বোরহাট ডি ডি তেওয়ারী গলিতে। বাড়িটির মালিক সুব্রত আহিড়ী জানিয়েছেন, প্রায় ১৫০বছরের পুরনো তাঁদের বাড়িটির সামনের অংশ এদিন সকালে হটাৎ ভেঙে পড়ে। 


তিনি জানিয়েছেন, তাঁরা দুই ভাই বর্তমানে বেকার। স্বাভাবিকভাবেই এত প্রাচীন বাড়ির রক্ষণাবেক্ষণ করা তাঁদের পক্ষে করা সম্ভব হয়নি। অন্যদিকে দীর্ঘদিন বাড়ির এই অংশে কেউ বসবাস করতেন না। অব্যবহারের ফলে রাস্তার দিকের অংশটি দুর্বল হয়ে পড়েছিল। তারমধ্যে লাগাতার বৃষ্টির কারণেই হয়তো ভেঙে পড়ল বাড়িটির সামনের অংশ। সুব্রত বাবু জানিয়েছেন, লকডাউন শুরু হওয়ায় রাস্তায় লোকজন চলাচল কম থাকার ফলে কোনো বিপদ ঘটেনি। তবে ঘটনার পরই তিনি পৌরসভা থেকে শুরু করে বর্ধমান থানায় খবর দিয়েছেন।


পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে সামগ্রিক অবস্থা খতিয়ে দেখে গেছে। এদিকে সকাল সকাল পাড়ার মধ্যে পুরনো বাড়ি ভেঙে পড়ার ঘটনায় আলোড়ন পড়েছে। পাশাপাশি পাড়ার মধ্যেই কয়েকটি বিপদজ্জনক বহু প্রাচীন কয়েকটি বাড়ি অবলম্বে সংস্কারের দাবি উঠেছে প্রতিবেশীদের মধ্যে থেকে। 


এদিকে, এই বাড়ি ভেঙে পড়ার ঘটনার পরই কার্যত নড়েচড়ে বসেছে বর্ধমান পুরসভা। বর্ধমান পুরসভার এক্সিকিউটিভ অফিসার অমিত গুহ এদিন জানিয়েছেন, পুরসভার এসেসমেণ্ট বিভাগের ইঞ্জিনিয়ারকে গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, এখনও বর্ধমান পুরসভার কাছে এধরণের কোনো পুরনো বাড়ির ডাটা ব্যাঙ্ক নেই। তবে তাঁরা এই ধরণের পুরনো বাড়ির একটি তালিকা তৈরীর উদ্যোগ নিচ্ছেন। সেক্ষেত্রে কোন কোন বাড়ি বিপদজনক অবস্থায় আছে তাও খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কার্যতই এই ঘটনার জেরে গোটা পুরসভা এলাকার ৩৫টি ওয়ার্ডের ক্ষেত্রেই কোথায় কোথায় প্রাচীন বাড়ি রয়েছে এবং সেগুলির কি অবস্থা তার তালিকা তৈরীর কাজ শুরু করে দিল বর্ধমান পুরসভা।
বর্ধমান শহরে ভেঙে পড়লো ১৫০ বছরের প্রাচীন বাড়ি, শুরু পুরসভার তালিকা তৈরীর কাজ
  • Title : বর্ধমান শহরে ভেঙে পড়লো ১৫০ বছরের প্রাচীন বাড়ি, শুরু পুরসভার তালিকা তৈরীর কাজ
  • Posted by :
  • Date : July 22, 2020
  • Labels :
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top