Headlines
Loading...
বর্ধমান রেল স্টেশন থেকে গ্রেপ্তার হাওড়ার শিশুপুত্র খুনের ঘটনার অভিযুক্ত

বর্ধমান রেল স্টেশন থেকে গ্রেপ্তার হাওড়ার শিশুপুত্র খুনের ঘটনার অভিযুক্ত


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: এক শিশুকে খুন করে বিহারের সমস্তিপুরে দেশের বাড়ি পালিয়ে যাওয়ার সময় হাওড়ার সিটি পুলিশের গোয়েন্দারা বর্ধমান ষ্টেশন থেকে সোমবার রাতে গ্রেপ্তার করল অভিযুক্তকে। ধৃতের নাম মহম্মদ সেলিম। 

জানা গেছে, সোমবার হাওড়ার বাঁকড়া বাজার এলাকায় এক শিশুকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে ডোমজুড় থানার পুলিশ। হাওড়ার বাঁকড়া বাজার এলাকার চুড়ি কারখানার মালিক মহম্মদ ইফতিকারের কারখানায় কাজ করত মহম্মদ সেলিম। তার বেতন ছিল ৬ হাজার টাকা। কিন্ত গত ফেব্রুয়ারী মাসে তাকে ৪ হাজার টাকা বেতন দেওয়া হয়। বাকি টাকা পেতে সেলিম বারবার ইফতিকারের কাছে যান। বকেয়া বেতন পেতে দুজনের মধ্যে দফায় দফায় কথা কাটাকাটিও হয় বলে জানা গেছে। 

এরপরই ইফতিকারের বাড়ির নিচে রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁর ৫ বছরের শিশুপুত্রকে উদ্ধার করে ডোমজুড় থানার পুলিশ। মহম্মদ ইফতিকার অভিযোগ করেন, বকেয়া টাকার জন্যই সেলিম তাঁর ছেলেকে খুন করেছে। এরপরই তদন্তে নামে হাওড়া সিটি পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ। জানা গেছে, তদন্তে নেমেই সেলিমের মোবাইল ফোনের লোকেশান দেখে রাতেই তাঁরা পৌঁছে যান বর্ধমান ষ্টেশনে। 

এরপর বর্ধমান ষ্টেশন থেকেই সেলিমকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যান তাঁরা। পুলিশের কাছে প্রাথমিক জেরায় সে স্বীকার করেছে বিহারের সমস্তিপুরে সে তার দেশের বাড়ি চলে যাবার পরিকল্পনা করছিল। বর্ধমান জিআরপি সূত্রে জানা গেছে, সোমবার রাতে বর্ধমান ষ্টেশনে সন্দেহজনকভাবে ঘোরাঘুরি করার সময় তাকে আটক করে বর্ধমান জিআরপি। 

জিআরপি সূত্রে জানা গেছে, হাওড়ার ওই ঘটনার পরই সমস্ত থানায় থানায় সন্দেহভাজন সেলিমের ছবি ও বিবরণ পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল। বর্ধমান ষ্টেশনে ঘোরাঘুরি করার সময় তাকে দেখেই সন্দেহ জাগে জিআরপির। এরপরই তাকে জেরায় পুলিশ হাওড়ার খুনের ঘটনায় তার জড়িত থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হন। 
এরপরই হাওড়া পুলিশকে গোটা বিষয়টি জানালে তাঁরা এসে সেলিমকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যান। তবে আদপেই বকেয়া ২ হাজার টাকার জন্য সেলিম ইফতিকারের শিশুপুত্রকে খুন করেছে নাকি এই খুনের পিছনে অন্য কিছু কারণ রয়েছে তা খতিয়ে দেখছে হাওড়া পুলিশ।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});