Headlines
Loading...
বর্ধমানে লক ডাউন ঘোষণার পরই বন্ধ সরকারি পশু হাসপাতাল, ২৪ ঘন্টা পরিষেবার প্রতিশ্রুতি পশুপ্রেমী সংগঠনের

বর্ধমানে লক ডাউন ঘোষণার পরই বন্ধ সরকারি পশু হাসপাতাল, ২৪ ঘন্টা পরিষেবার প্রতিশ্রুতি পশুপ্রেমী সংগঠনের


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সমস্ত সরকারি অফিস খোলা রাখার নির্দেশ থাকলেও সোমবার বিকেলের পর থেকেই বর্ধমানের রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্রে তালা ঝুলিয়ে দেওয়ার ঘটনায় রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়ালো। এর আগেও গত বছর দুর্গা পুজোর ছুটি ঘোষণার পরেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল এই হাসপাতাল। সেই সময় রাজ্য প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথের হস্তক্ষেপে ফের খোলা হয় এই হাসপাতাল। 

যদিও এদিন পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানিয়েছেন, এই ধরণের ঘটনার খবর তাঁর জানা ছিলোনা। এবং সরকারি পশু হাসপাতাল বন্ধ থাকারও কোনো ঘোষণা নেই। সুতরাং এবিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে অতি দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অন্যদিকে পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধারা জানিয়েছেন, কোনোভাবেই পশু হাসপাতাল বন্ধ করা যাবে না। যদি এই ধরনের কোনো ঘটনার খবর পাওয়া যায় সেক্ষেত্রে সরকারি ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

এদিকে বর্ধমানের একটি পশু প্রেমী সংগঠন ভয়েস ফর ভয়েসলেস এর পক্ষ থেকে সোমবারই বর্ধমান সদর থানায় একটি লিখিত আবেদন জমা করা হয়েছে। সংস্থার সাধারণ সম্পাদক অভিজিৎ মুখার্জি জানিয়েছেন, আগামী ২৭মার্চ রাত বারোটা পর্যন্ত রাজ্য সরকার ২৩ টি পুরসভা সহ আরও বেশ কিছু বড় শহরে করোনা মোকাবিলায় লক ডাউন ঘোষণা করেছেন। কিছু জরুরি পরিষেবা ছাড়া প্রায় সমস্ত কিছু বন্ধ থাকবে। 

পাশাপাশি সরকারি পশু হাসপাতালেও চিকিৎসা পরিষেবা ব্যাহত হতে পারে এই আশংকায় এই পরিস্থিতি মোকাবিলায় তাঁদের সংস্থা পশুদের চিকিৎসার জন্য আগামী দিনগুলোতে ২৪ ঘন্টা জরুরি পরিষেবা চালু রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, লক ডাউনের যাবতীয় নিয়ম মেনেই এই পরিষেবা চালু রাখা হবে। তিনি জানান, মানুষের যেমন জীবনের মূল্য রয়েছে, তেমনি অবলা পশু পক্ষীদেরও জীবনের মূল্য আছে। পশু পক্ষীদেরও শারীরিক সমস্যা হতে পারে যেকোনো সময়। কিন্তু মানুষ যেমন তাঁর কষ্টের কথা জানাতে, বোঝাতে পারেন - পশুরা কিন্তু সেটা পারে না। তাই তাদের জন্যই এই আপৎকালীন চিকিৎসা পরিষেবা কেন্দ্র খোলা হচ্ছে।

অভিজিৎ বাবু জানিয়েছেন, পশুদের আপৎকালীন চিকিৎসা পরিষেবা পাওয়ার জন্য ইতিমধ্যেই একটি টোল ফ্রি নম্বর চালু করা হয়েছে। যেটি হলো - 1800120361111 এবং এই নম্বরে যোগাযোগ করতে দেরি হলে 9434083636 নম্বরেও যোগাযোগ করা যাবে। তিনি জানিয়েছেন, ভয়েস ফর ভয়েসলেস সংস্থার সদস্যরা এই জরুরি অবস্থায় প্রয়োজনে বাড়িতে পৌছেও পশুদের চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়ার কাজ করবেন। উল্লেখ্য, এই সংবাদ পরিবেশনের কিছুক্ষণ আগেই সভাধিপতি শম্পা ধারা জানিয়েছেন, আগামীকাল থেকে সরকারি পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্র গুলো স্বাভাবিক ভাবেই খোলা থাকবে। এবং পর্যাপ্ত চিকিৎসক পশুদের চিকিৎসায় নিয়োজিত থাকবেন।

0 Comments: