728x90 AdSpace

Latest News

Monday, 20 January 2020

ঘটনার ২৪ ঘন্টার মধ্যে বর্ধমানে শিশুচুরি কান্ডে গ্রেফতার দম্পতি, উদ্ধার শিশুকন্যা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: বর্ধমানের অনাময় সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল চত্বর থেকে সদ্যজাত তিনদিনের শিশুকন্যা চুরির ঘটনার ২৪ ঘন্টার মধ্যে ঘটনায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ। রবিবার সকাল ১১ টা নাগাদ ঘটনা ঘটার পর পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ বিভিন্ন থানায় ঘটনার বিবরণ জানিয়ে অভিযুক্ত দের খোঁজে নজরদারি শুরু করে।


ইতিমধ্যে পশ্চিম বর্ধমানের কাঁকসা থানার পুলিশ কাঁকসার বাঁসকোপা টোলপ্লাজায় সন্দেহভাজন এক দম্পতি ও তাদের শিশুকন্যাকে দেখে জিজ্ঞাসাবাদ করে। সেসময় ওই দম্পতি বাসে দুর্গাপুরে ভাড়া বাড়িতে ফিরছিল। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর সেই সময় পুলিশ ওই দম্পতি কে ছেড়েও দিলেও সোমবার সকালে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশের উপস্থিতিতে দুর্গাপুর থানা ও কাঁকসা থানার সহযোগিতায় দুর্গাপুরের বেনাচিতির সত্যজিৎ পল্লী থেকে দম্পতিকে আটক করে। উদ্ধার করা হয়েছে শিশুকন্যাও। জানা গেছে, অভিযুক্তের নাম পিংকি বন্দোপাধ্যায় বৈরাগ্য ওরফে মধুমিতা। স্বামীর নাম মণি বৈরাগ্য। 

এই পরিচয়ও সঠিক কিনা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এই দম্পতি দুর্গাপুরের বেনাচিতির সত্যজিৎ পল্লীতে মাত্র এক মাস আগে বাড়ি ভাড়া নিয়েছিল। পিংকি বৈরাগ্যের এটি দ্বিতীয় বিয়ে। তার বাড়ি রায়নার সহসপুর। গত ১৫জানুয়ারি দুর্গাপুরের বিধাননগর হাসপাতালে প্রসূতি বিভাগে ভর্তি হয়েছিলেন পিংকি বৈরাগ্য। কিন্তু চিকিৎসক তাকে জানিয়ে দেন যে তিনি অন্তঃসত্ত্বা নন। আর এরপরেই বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এসে পেটে ব্যথার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হয়ে যান পিংকি। কিন্তু এখানেও চিকিৎসক বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষার পর তেমন কিছুই সমস্যা দেখতে না পাওয়ায় পিংকি বৈরাগ্য কে ছুটি দিয়ে দেয়। 

এদিকে শিশু কন্যা জন্মের পর রায়নার বাসিন্দা প্রসূতি রিমা মালিকেরও গত ১৭জানুয়ারি ছুটি হয়ে যায় বর্ধমান হাসপাতাল থেকে। আর এই সময় পিঙ্কি বৈরাগ্য রিমা মালিকের পরিবারের লোকেদের জানায় বর্ধমানের অনাময় হাসপাতালে গেলে কন্যা সন্তান জন্মের জন্য সরকারি প্রকল্পে ৬হাজার টাকা পাওয়া যাবে। আর সেই মতো সবাইকে নিয়ে পিঙ্কি অনাময় হাসপাতালে নিয়ে যায়। আর সেখানেই নানান ছলচাতুরির মাধ্যমে শিশু টিকে চুরি করে পালায় পিঙ্কি বন্দোপাধ্যায় বৈরাগ্য বলে অভিযোগ।

পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশের আধিকারিক সৌভিক পাত্র জানিয়েছেন, এই ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।  ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।পাশাপাশি এদিনই শিশুটিকে তার মা বাবার হাতে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। শিশু টি সুস্থ আছে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়েছে।
ঘটনার ২৪ ঘন্টার মধ্যে বর্ধমানে শিশুচুরি কান্ডে গ্রেফতার দম্পতি, উদ্ধার শিশুকন্যা
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top