728x90 AdSpace

Latest News

Tuesday, 17 December 2019

৩০৩ এর গরম মানুষ তৈরী করেছে, আর মানুষই ঠাণ্ডা করে দেবে সেই গরম - চন্দ্রিমা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: এনআরসি নিয়ে রাজ্য সরকারের বিজ্ঞাপন দেওয়া নিয়ে যে বিতর্ক দেখা দিয়েছে এবং ইতিমধ্যেই যা নিয়ে সরব হয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় তা নিয়ে মঙ্গলবার কোনো মন্তব্যই করলেন না রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। পাশাপাশি এনআরসি এবং সিএএ নিয়ে সুপ্রীম কোর্টে রাজ্য সরকার কোনো মামলা করছে কিনা সে প্রশ্নে চন্দ্রিমা জানিয়ে গেলেন, গোটা বিষয়টি মমতা বন্দোপাধ্যায়ই ঠিক করবেন। 

মঙ্গলবার বর্ধমানের টাউন হলে পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল মহিলা কংগ্রেসের উদ্যোগে পৌর এলাকার তৃণমূল মহিলা কর্মীসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে গেলেন রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। 

তিনি এদিন বলেন ওই মোদি ভাই আর মোটা ভাই ৩০৩ -এর গরম দেখাচ্ছেন? মনে রাখবেন, গরম করেন মানুষ আর ওই গরম কে ঠাণ্ডাও করেন সেই মানুষই। আমরাও দেখে নেবো। তিনি বলেন, ভারতের একটি সংবিধান আছে। সংবিধান অনুসারে এখানে মানুষ নাগরিকত্ব পেয়েছেন। নাগরিকত্ব প্রাপ্তির একাধিক নিয়ম আছে। তার ওপর আবার কেন সিএএ ? কেন একজন শিশুকে জন্মানোর পর তাঁকে জবাবদিহি করতে হবে।

এদিন মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসকে এব্যাপারে ব্যাপক প্রচারে নামারও নির্দেশ দিয়ে যান তৃণমূল মহিলা কংগ্রেসের রাজ্য সভানেত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। এদিন এই অনুষ্ঠানে চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ছাড়াও হাজির ছিলেন রাজ্যের অপর মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, কলকাতার বিধায়ক স্মিতা বক্সী, পূর্ব বর্ধমান জেলা মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী শিখা সেনগুপ্ত প্রমুখরাও। এদিন বক্তব্য রাখতে গিয়ে রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তরের মন্ত্রী তথা পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি স্বপন দেবনাথ টাউন হলে উপস্থিত মহিলা কর্মী ও নেতৃত্বের রীতিমত পরীক্ষাও নেন। 

এদিন স্বপন দেবনাথ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় রাজ্যের মানুষের কল্যাণের জন্য যে সমস্ত প্রকল্প ঘোষণা করেছেন সেই প্রকল্প নিয়ে জিজ্ঞাসা করেন সভায় উপস্থিত মহিলা নেত্রীদের। কিন্তু উপস্থিত অধিকাংশ নেত্রীই তা নিয়ে কিছুই কার্যত বলতে পারেন নি। আর এব্যাপারে বক্তব্য রাখতে গিয়ে স্বপনবাবু বলেন, মায়েরাই বড় শক্তি। তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় রাজ্যের মহিলাদের জন্য কতকিছুই করেছেন। কত প্রকল্প আছে মহিলাদের সহায়তার জন্য। কিন্তু সেইসব প্রকল্পের সুবিধার কথা কজন পৌঁছে দিয়েছেন মহিলাদের কাছে? 

তিনি বলেন, পূর্ব বর্ধমান জেলায় ২৩ টি পঞ্চায়েত সমিতির মধ্যে ১৩টি পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মহিলা। ৫৮টি জেলা পরিষদ আসনের মধ্যে ২৩টি মহিলা সদস্য এবং ২১৫টি গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে ১২৭টি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মহিলা। স্বপনবাবু এদিন বলেন, কেন মহিলারা এগিয়ে আসবেন না? দাদাদের কোনো প্রয়োজন নেই, দিদিরাই যদি মনে করেন তাহলে আসন্ন নির্বাচনে এই বাংলা মা মাটি মানুষের দখলেই থাকবে। 

অপরদিকে, এদিন এই মঞ্চেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে স্বপনবাবুর বক্তব্যকে কার্যত খারিজ করে বিধায়িকা স্মিতা বক্সী বলেন, মহিলারা জানেন না। তাঁরা না জানতেই পারেন। কিন্তু তাঁদের কে এব্যাপারে কি কেউ জানিয়েছেন? জনপ্রতিনিধিদের দায়িত্ব ও কর্তব্য তো এটাও। কেন তাঁরা এব্যাপারে মহিলা নেত্রীদের জানাননি। সেটাও দেখতে হবে।
৩০৩ এর গরম মানুষ তৈরী করেছে, আর মানুষই ঠাণ্ডা করে দেবে সেই গরম - চন্দ্রিমা
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top