728x90 AdSpace

Latest News

Monday, 9 December 2019

রাজ্যে বিজ্ঞান চর্চা এবং গবেষণায় আগ্রহ কম, বাড়ছে অনীহা - পার্থ চট্টোপাধ্যায়


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: রাজ্যে বিজ্ঞান চর্চা এবং বিজ্ঞান নিয়ে গবেষণার কাজ হচ্ছে না বলে স্বীকার করে নিলেন রাজ্যের উচ্চশিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সোমবার থেকে দুদিন ব্যাপী বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪র্থ আঞ্চলিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কংগ্রেসের উদ্বোধন করতে গিয়ে পার্থবাবু বলেন, গবেষণা নিয়ে রাজ্যের কাজ অত্যন্ত কম। বিজ্ঞান চর্চা নিয়েও যা হওয়ার কথা ছিল তা এতকাল হয়নি। বিজ্ঞানী মানেই কয়েকজনের নামই ঘোরাফেরা করছে। 

তিনি বলেন, তাঁর কাছে এখনও পর্যন্ত যে তথ্য আছে তাতে বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি কমছে। ভিত্তিকে শক্ত করতে হলে বিজ্ঞান সম্পর্কে সচেতনতা আনা দরকার।গ্রামে গ্রামে শহরে শহরে বিজ্ঞান নিয়ে চর্চা করা দরকার। তিনি বলেন, গবেষণায় আগ্রহ খুবই কম। অনীহা। তিনি বলেন, রাজ্যে হাই ক্লাস বা সুপার ক্লাস কোনো গবেষণা কেন্দ্র নেই। গবেষণার মানও কমছে। তিনি বলেন, তাঁদের সময়ে একটা চাকরী পাবার জন্য কোনো বিষয়ের ওপর বেশি জোর দেওয়া হত। কিন্তু সামগ্রিকভাবে বিজ্ঞান নিয়ে চর্চা কম। এখন অভিভাবকদের চাপে অনেকেই বিভিন্ন কোর্স করছেন। কিন্তু তাদের মান কম। বিজ্ঞান নিয়ে চর্চা ও গবেষণার প্রতি সেই আগ্রহ বা সেই উদ্দীপনা নেই।



এদিন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কংগ্রেসের উদ্বোধন করতে গিয়ে গবেষণা পত্রের সংক্ষিপ্ত সংকলনের উদ্বোধন করে পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, এখানে মাথা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। কিন্তু তৃণমূল স্তরে সার কম। তিনি বলেন, স্কুল, কলেজে বিজ্ঞান প্রদর্শনী, মেলা হচ্ছে। সেখানে ছেলেমেয়েরা ব্রীজ ভাঙা ঠেকাতে কি করা যায় তা করে দেখাচ্ছে। কিন্তু সেগুলোর বাস্তবিক ব্যবহার হচ্ছে না। তাই দরকার একশন টেকেন রিপোর্ট। না হলে গবেষণা করে বাইরে চলে যাবে। আর বাবা- মারা রাস্তায় বসে কাঁদবে, ভিক্ষা করবে, কেউ কেউ বলবে ওনার ছেলে বিদেশে গবেষণা করে, বাবা মাকে দেখে না। - এটাই এখন দস্তুর হয়ে উঠেছে।

এরই পাশাপাশি এদিন পার্থবাবু বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ্যে বলেন, নিয়মিত ক্লাস করতে হবে। পড়াশোনো ঠিকঠাক করতে হবে। উপাচার্যকে ঘেরাও করে সমস্যার সমাধান হবে না। নিয়ম সবাইকে মানতে হবে। উল্লেখ্য, সম্প্রতি রাতভর 


বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে ছাত্রছাত্রীরা বিভিন্ন দাবীদাওয়া নিয়ে রাতভর ঘেরাও করে রাখে। তা নিয়ে রীতিমত উষ্মা প্রকাশ করেন পার্থবাবু। অপরদিকে, ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ্যে সতর্কবার্তা দেবার পাশাপাশি এদিন তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিমাই সাহাকে বলেন, আপনাকে করজোড়ে বলছি সময়মতো পরীক্ষা নিন, সময়মতো রেজাল্ট বার করুন। কোনো এজেন্সীর দোহাই দিলে কেউ মানবে না। সঠিক সময়ে ছাত্রছাত্রীদের হাতে মার্কসিট তুলে দিন।


এদিন এই বিজ্ঞান কংগ্রেসে অন্যান্যদের মধ্যে হাজির ছিলেন রাজ্যের অপর দুই মন্ত্রী তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র স্বপন দেবনাথ এবং আশীষ বন্দোপাধ্যায়, সিধু কানহু বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সহ দুই বিশিষ্ট বিজ্ঞানী অমিতাভ ঘোষ এবং অরুণাভ গোস্বামী।
রাজ্যে বিজ্ঞান চর্চা এবং গবেষণায় আগ্রহ কম, বাড়ছে অনীহা - পার্থ চট্টোপাধ্যায়
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top