728x90 AdSpace

Latest News

Wednesday, 13 November 2019

টানা 7 দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ার পর শেষমেষ মৃত্যু হল অগ্নিদগ্ধ তুহিনা বেগমের


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে টানা 7 দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ার পর শেষমেষ জীবনের কাছে হার মানতে হল গলসী থানার খানা ডাঙাপাড়া গ্রামের গৃহবধু তুহিনা বেগমকে। বুধবার গভীর রাতে তিনি মারা গেলেন। 

উল্লেখ্য, গত ৬ নভেম্বর গভীর রাতে ডাঙাপাড়ার বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত রেলের কর্মী সেখ ইউসুফ সম্পত্তিগত বিবাদ এবং পরপর দুটি কন্যা সন্তান হওয়ায় নিজের ছোট ছেলে সেখ ইকবাল, তাঁর স্ত্রী তুহিনা বেগম, দুই মেয়ে বিলকিস খাতুন এবং সোহিনা খাতুনকে ঘরের মধ্যে তালাবন্ধ করে গ্যাসের পাইপ ঢুকিয়ে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করেন। তাদের আর্ত চিৎকারে গ্রামবাসীরা ছুটে এসে তাদের উদ্ধার করে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। বুধবার বিকালেই মারা যান সেখ ইকবাল। তুহিনা বেগম এবং তাঁর দুই মেয়ের চিকিৎসা চলছিল বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। 

এদিকে, এই ঘটনায় গলসী থানার পুলিশ গ্রেপ্তার করে অভিযুক্ত সেখ ইউসুফ এবং তার বড় ছেলে সেখ একরামকে। গ্রামবাসীরা এই ঘটনায় দুই অভিযুক্তের ফাঁসির দাবী জানিয়েছেন। অন্যদিকে, তুহিনা বেগম সহ দুই শিশু কন্যাকে বাঁচিয়ে তোলার জন্য জাতি ধর্ম নির্বিশেষে গ্রামবাসীরা চাঁদা তুলে অর্থ সংগ্রহও শুরু করেন। কিন্তু তারই মাঝে মঙ্গলবার গভীর রাতে মৃত্যু হল তুহিনা বেগমের। অন্যদিকে, গুরুতর অবস্থায় বিলকিস খাতুন ও সোহিনা খাতুনকে চিকিৎসার জন্য কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয়েছে।
টানা 7 দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ার পর শেষমেষ মৃত্যু হল অগ্নিদগ্ধ তুহিনা বেগমের
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top