Headlines
Loading...
মেমারী স্কুল পরিদর্শকের আত্মহত্যায় ব‌্যাপক চাঞ্চল্য, অভিযোগের তীর স্ত্রীর দিকে

মেমারী স্কুল পরিদর্শকের আত্মহত্যায় ব‌্যাপক চাঞ্চল্য, অভিযোগের তীর স্ত্রীর দিকে


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,মেমারী: স্ত্রীর বিবাহ বহির্ভুত সম্পর্কের জেরে গলায় দড়ি দিয়ে এক স্কুল পরিদর্শকের আত্মহত্যার ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ালো। মৃতের নাম তাপস মণ্ডল (৩০)। তাঁর বাড়ি উত্তর ২৪ পরগণার বাদুড়িয়ায়। বছর তিনেক আগে পোস্টিং নিয়ে পূর্ব বর্ধমান জেলার মেমারির কলানবগ্রাম চক্রের (প্রাথমিক স্কুল) পরিদর্শক হিসাবে আসেন। তিনি মেমারির রবীন্দ্রনগরে একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গতবছর মার্চ মাস নাগাদ তাঁর বিয়ে হয়। মর্মান্তিক এই ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে পরিবারে।

মৃত তাপস মণ্ডলের বাবা তারকনাথ মণ্ডল জানিয়েছেন, তাপস মণ্ডলের স্ত্রী লাবণী মণ্ডলের সঙ্গে অন্য পুরুষের সম্পর্ক ছিল। তা নিয়ে প্রায়শই তাপস মণ্ডলের সঙ্গে লাবণী মণ্ডলের ঝগড়াও হত। এর জেরে লাবণীদেবী প্রায়ই বাপের বাড়ি চলে যেতেন। কিন্তু সেখানে গেলে ফিরতেন অনেক দেরীতে। কার্যত শ্বশুরবাড়িতেই তিনি কম থাকতেন। বেশিরভাগ সময়েই বাপের বাড়িতে থাকতেন। তারকনাথবাবু জানিয়েছেন, প্রায়ই তাপসের সঙ্গে তার ঝামেলা হলেও বাবা হিসাবে তিনি তাদের মাঝে ঢুকতেন না। যদিও এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে লাবনী দেবীর সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। 

শনিবার তারকনাথ বাবু জানিয়েছেন, শুক্রবার রাত্রি প্রায় ২ টো নাগাদ তাঁর বৌমা তাঁকে জানান, তাপসবাবুকে ফোন করলেও তিনি ফোন ধরছেন না। এরপরই শনিবার সকালে তাঁরা এই দুঃসংবাদ পান। তারকবাবু জানিয়েছেন, লাবণীদেবী একটি প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষিকাও। শুক্রবার রাত্রি প্রায় সাড়ে এগারোটা নাগাদ তাপসবাবু লাবনী দেবীকে ফোনও করেছিলেন। 

তারকবাবু জানিয়েছেন, এই ঘটনায় তিনি মেমারী থানায় অভিযোগ জানাচ্ছেন বৌমার বিরুদ্ধে। অপরদিকে, প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, এদিন সকালে তিনি ঘুম থেকে না ওঠায় প্রতিবেশীরা জানালার ফাঁক দিয়ে সিলিং ফ্যানে তাঁর ঝুলন্ত দেহ দেখে পুলিশে খবর দেয়। মেমারি থানার পুলিশ বাড়ির দরজা খুলে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায়।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});