Headlines
Loading...
সুচপুর গণহত্যায় সাজাপ্রাপ্ত বন্দির মৃত্যু বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ সেলে

সুচপুর গণহত্যায় সাজাপ্রাপ্ত বন্দির মৃত্যু বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ সেলে


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: বীরভূমের সুচপুর গণহত্যার মামলায় সাজাপ্রাপ্ত এক বন্দির মৃত্যু হল বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ সেলে। মৃতের নাম মহম্মদ আবদুল্লা (৪৫)। বাড়ি বীরভূমের নানুরে। গত ১৬ নভেম্বর বর্ধমান কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার থেকে অসুস্থ হওয়ায় তাকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ সেলে ভর্তি করা হয়েছিল। রবিবার রাতে তার মৃত্যু হয়। সংশোধনাগার সূত্রে জানা গেছে, তিনি সাজাপ্রাপ্ত বন্দি ছিলেন।

অন্যদিকে, সিপিএম সূত্রে জানা গেছে, ২০০০ সালের ২৭ জুলাই সূচপুরে যে গণহত্যার ঘটনা ঘটে সেই ঘটনায় ১১ জন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীকে খুনের অভিযোগ ওঠে সিপিএমের বিরুদ্ধে। ১১ জনকে লাঠি, লোহার রড ও কুড়ুল দিয়ে নৃশংসভাবে খুন করা হয়। ঘটনায় মারাত্মক অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা (১৪৮), বেআইনি জমায়েত (১৪৯) ও খুন (৩০২) ধারায় মামলা রুজু হয়। সেই ঘটনায় ৪৪ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় বীরভূমের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা বিচারক বিশ্বনাথ কোনার। সাজাপ্রাপ্তদের মধ্যে সিপিএমের প্রাক্তন জেলা পরিষদের ও জেলা কমিটির কয়েকজন সদস্যও রয়েছেন।

এদিকে, রবিবার রাতে মহম্মদ আবদুল্লার মৃত্যুর খবর পেয়ে এদিন বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আসেন সিপিএমের কৃষকসভার রাজ্য সম্পাদক অমল হালদার এবং নানুরের বিধায়ক শ্যামলী প্রধান। অমলবাবু এদিন ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, রবিবার রাতে সিপিএমের ওই নেতার মৃত্যু হলেও হাসপাতালের গাফিলতির জেরে সোমবার তার ময়নাতদন্ত হয়নি।
                                                    ছবি - ইন্টারনেট
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});