Headlines
Loading...
ছট পুজোকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উন্মাদনা জেলা জুড়ে

ছট পুজোকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উন্মাদনা জেলা জুড়ে


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: শনিবার গোটা দেশের সঙ্গে পূর্ব বর্ধমান জেলা জুড়েও ব্যাপক উন্মাদনার সঙ্গে পালিত হলো ছট পুজো। জেলার নদী ও বিভিন্ন পুকুর ঘাটে সূর্য প্রনাম কে ঘিরে ছিল ব্যাপক আয়োজন। এদিকে ছটপূজোর জন্য একধার থেকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাফাইকর্মীরা ছুটি নেওয়ায় চরম সমস্যা দেখা দিয়েছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সরকারী ও বেসরকারী এবং ঠিকাদার নিযুক্ত সাফাই কর্মীদের সিংহভাগই হিন্দি ভাষাভাষী। ফলে ছট পুজোর জন্য সিংহভাগ সাফাই কর্মীই ৪দিন ধরে ছুটি নিয়ে রয়েছে। ফলে সংকট দেখা দিয়েছে হাসপাতালের ময়লা, জঞ্জাল সাফাইকে ঘিরে। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, একটি ঠিকাদার সংস্থার মোট সাফাই কর্মী রয়েছেন প্রায় ৮০জন। এর মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি কর্মী ছটপূজোর জন্য ছুটি নিয়েছেন। অন্যদিকে, কমাণ্ডো বাহিনী (অপর সংস্থা)র রয়েছে ১০০-রও বেশি সাফাইকর্মী। কিন্তু ছটপুজোর জন্য তাঁদেরও সিংহভাগ কর্মী ছুটি নিয়েছেন। এরই পাশাপাশি খোদ সরকারী  সাফাইকর্মীদের অনেকেই ছটপুজোর জন্য ছুটি নিয়েছেন। ফলে বৃহত এই হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা নিয়ে চরম সমস্যা দেখা দিয়েছে।

হাসপাতালের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, সাফাইকর্মীদের নিয়োগকারী সংস্থাকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, একটি সংস্থার এক সুপারভাইজার জানিয়েছেন, যাঁরা ছুটি নেননি তাঁদের দিয়েই তাঁরা রোটেশানে দু-তিনটে সিফটে কাজ করিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেবার চেষ্টা করছেন। তবে তাঁরা আশা করছেন সোমবার থেকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে।


এদিকে, ছটপুজোকে কেন্দ্র করে বর্ধমান শহরের মেহেদিবাগান এলাকা মেতে উঠেছে। এদিন এখানে সূর্য মূর্তির উদ্বোধন করেন বর্ধমান পুরসভার প্রাক্তন কাউন্সিলার খোকন দাস। হাজির ছিলেন জেলা আইএনটিটিইউসির জেলা সভাপতি ইফতিকার আহমেদ সহ অন্যান্য তৃণমূল নেতারা। গত প্রায় ৬০ বছর ধরে মেহেদিবাগান এলাকায় ছটপূজোকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উন্মাদনা চলছে।
.
এরই পাশাপাশি এদিন ৩৩নং ওয়ার্ডের ষাঁড়খানাগলিতে ছটপুজোতে গরীব ও দুঃস্থ মানুষ যাঁরা ছটপুজোর জন্য তেমন জোগাড় করতে পারেননি তাঁদের জন্য জামাকাপড়, আটা, ময়দা প্রভৃতি তুলে দেওয়া হয় তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে। অপরদিকে, এদিন বিকালে দামোদর নদে ছটপুজোকে কেন্দ্র করে ভিড় উপচে পড়ে। ছটপুজো সমন্বয় কমিটি এবং জেলাপুলিশের উদ্যোগে ইতিমধ্যেই গোটা এলাকায় ব্যাপক নজরদারী রাখা হয়েছে। জেলা পুলিশের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, এদিন লাখো মানুষের ভিড় উপচে পড়েছিল দামোদর নদে সদরঘাটে।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});