Headlines
Loading...
বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই বন্দির অস্বাভাবিক মৃত্যু

বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই বন্দির অস্বাভাবিক মৃত্যু


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: জেল বন্দি দুজনের অস্বাভাবিক মৃত্যু হল। শুক্রবার সকালে বর্ধমান কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারের দোতলায় মহিলাদের বাথরুমে এক মহিলা বন্দির ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। মৃতের নাম সীমা বক্সি ওরফে চক্রবর্তী। বাড়ি হুগলীর রিষড়ার ২নং কলোনী মোড় এলাকায়। 

সংশোধনাগার সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালে একটি খুনের ঘটনায় খুন ও প্রমাণ লোপাটের অভিযোগে শ্রীরামপুরের দ্বিতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা বিচারক তাঁকে যাবজ্জীবন সাজা দেন। তারপর থেকে তিনি হুগলীর সংশোধনাগারেই ছিলেন। গত ২৪ আগষ্ট তাঁকে বর্ধমান কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে নিয়ে আসা হয়। শুক্রবার তাঁর অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় বর্ধমান আদালতের চতুর্থ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট রঞ্জিনী কাশ্যপের উপস্থিতিতে তাঁর সুরতহাল করা হয়। এদিকে, নিরাপত্তা ব্যবস্থার মাঝে কিভাবে ওই বন্দি আত্মহত্যা করল কিংবা তাকে খুন করে টাঙিয়ে দেওয়া হয়েছে কিনা তা নিয়ে চর্চা শুরু হয়েছে। যদিও এব্যাপারে সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষ মুখ খুলতে চাননি। এব্যাপারে একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু হওয়ার পাশাপাশি বিচারবিভাগীয় তদন্তও শুরু হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত পুলিশও মৃত্যুর কারণ নিয়ে কিছু বলতে চায়নি। 

অন্যদিকে, আরও এক বিচারাধীন বন্দির মৃত্যু হয়েছে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ সেলে। মৃতের নাম দীগেন ব্যানার্জ্জী (৬৫)। তাঁর বাড়ি দমদমের কৈখালির সর্দার পাড়া এলাকায়। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, তিনি বর্ধমান কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার থেকে ভর্তি হয়েছিলেন। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন। তার জেরেই বৃহস্পতিবার রাতে তাঁকে ভর্তি করা হয় বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। শুক্রবার ভোরে তাঁর মৃত্যু হয়।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});