Headlines
Loading...
বর্ধমানে কাঞ্চননগরে দুর্গা কার্নিভ্যালে ভাসলেন হাজারো মানুষ

বর্ধমানে কাঞ্চননগরে দুর্গা কার্নিভ্যালে ভাসলেন হাজারো মানুষ


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: বর্ধমানের কাঞ্চন উৎসব কমিটির উদ্যোগে এবার তৃতীয় বছরে পা দিল দুর্গা কার্নিভ্যাল।হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে বর্ধমানের কাঞ্চননগর,রথতলা,উদয়পল্লী এলাকার ১৯টি পুজো কমিটিকে নিয়ে জাঁকজমকপূর্ণ ভাবে সম্পন্ন হল দুর্গা কার্নিভ্যাল। বর্ধমান শহরের ২৩ ও ২৪ নং ওয়ার্ডের মোট ১৮টি দুর্গাপুজোকে নিয়ে তিন বছর আগে কিছুটা চ্যালেঞ্জের সুরেই শুরু হয়েছিল এই দুর্গা কার্নিভ্যাল। যার মূল উদ্যোক্তা কাঞ্চন উৎসব কমিটির সম্পাদক প্রাক্তন কাউন্সিলার তথা বর্ধমান জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক খোকন দাস।

উল্লেখ্য, তিন বছর আগে বর্ধমান শহরের বড় পুজোগুলিকে নিয়ে জেলা প্রশাসন মুখ্যমন্ত্রীর কলকাতার দুর্গা কার্নিভ্যালের অনুকরণে বর্ধমান শহরেও এই কার্নিভ্যাল করার উদ্যোগ নেন। বর্ধমান শহরের কয়েকটি বিগ বাজেটের পুজো কমিটিকে নিয়ে একটি দুর্গাপুজো সমন্বয় কমিটিও গঠন করে। কিন্তু প্রশাসনিক জটিলতার কারণেই তা ভেস্তে যায়। তারপর থেকেই খোকন দাস কাঞ্চননগরের উদয়পল্লী এবং রথতলাকে নিয়ে এই দুর্গা কার্নিভ্যাল অনুষ্ঠিত করছেন। এবছর ১৯টি দুর্গা পুজো এই কার্নিভ্যালে যোগদান করেছে।শুক্রুবার বিকেলে কার্নিভ্যালের উদ্বোধন করেন বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রের বিধায়ক রবিরঞ্জন চট্টোপাধ্যায়। হাজির ছিলেন রাজ্যের ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্প দপ্তরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া, সহকারী সভাধিপতি দেবু টুডু সহ বিশিষ্টজনেরা।


কাঞ্চননগরের কঙ্কালেশ্বরী কালীমন্দির প্রাঙ্গণ থেকে এই কার্নিভ্যাল শুরু হয়ে শেষ হয় রথতলায়। কলকাতার রেড রোডের এবছরের কার্নিভ্যালের থিম বাঁকুড়ার টেরাকোটার কাজকে তুলে ধরা হলেও বর্ধমানের এই কার্নিভ্যালে বিভিন্ন পুজো কমিটি তুলে ধরেন – পানীয় জলের সংকট, প্লাস্টিক বর্জন থেকে দেশের যুদ্ধ যুদ্ধ পরিস্থিতি, প্রাচীন বনেদীবাড়ির পুজোর বিসর্জন থেকে পরিবেশ বাঁচাও, গাছ লাগাও প্রভৃতি বার্তা নিয়ে বিভিন্ন থিম। খোকন দাস জানিয়েছেন, অংশগ্রহণকারী পুজো কমিটিগুলিকে উৎসাহ দিতে প্রথম পুরষ্কার হিসাবে ৫০ হাজার টাকা, দ্বিতীয় পুরষ্কার ৪০ হাজার টাকা, তৃতীয় পুরষ্কার ৩০ হাজার টাকা, চতুর্থ পুরষ্কার ২০ হাজার টাকা এবং পঞ্চম পুরষ্কার হিসাবে ১০ হাজার টাকা তুলে দেওয়া হয়।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});