Headlines
Loading...
30 টাকার টিকিটে 50 লাখ, হতভাগ্য রিক্সাচালক এখন ভাগ্যবান

30 টাকার টিকিটে 50 লাখ, হতভাগ্য রিক্সাচালক এখন ভাগ্যবান


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,গুসকরা: নিজের ছেলে মেয়ের মাথায় হাত দিয়ে দিব্যি করে জানালেও স্বামীর কথা বিশ্বাস করতে পারেননি স্ত্রী প্রতিমা দাস। পরে পরিবারের অন্য সদস্যদের কাছে শুনে কিছুটা হলেও বিশ্বাস ফিরে আসে। কিন্তু মনে ঢুকে যায় ভয়। গুসকরা পুরসভার 13 নং ওয়ার্ডের লাইনপার, মুচিপাড়া এলাকার বাসিন্দা পেশায় রিক্সা চালক গৌর দাস রবিবার 30 টাকা দিয়ে একটি লটারির টিকিট কেটেছিলেন। আর তার পরই সেদিন সন্ধ্যায়  ঘটে যায় মিরাকেল।


লটারির টিকিট মেলাতে গিয়ে দিন আনি দিন খাই পরিবারের রিক্সাচালক গৌর দাস জানতে পারেন তাঁর কাটা টিকিটেই প্রথম পুরস্কার পড়েছে। পরিমান 50 লক্ষ টাকা। স্বাভাবিকভাবেই এই খবর শোনার পর হাত পা কাঁপতে শুরু করে গৌড়ের। এমনকি নিজের স্ত্রীকে এই খবর জানালেও তিনিও বিশ্বাস করতে পারেননি। পাড়ার এবং কিছু সহৃদয় বন্ধুর পরামর্শে সাহস পেয়ে স্বাভাবিক হতে শুরু করেন গৌর দাস।

গৌর দাস জানিয়েছেন, লটারি টিকিট তিনি মাঝে মধ্যেই কাটতেন। পাঁচশো, হাজার যে দু একবার পাননি তেমন নয়, তবে একদম পঞ্চাশ লাখ - ভাবতে পারছেন না। দুই মেয়ে ও এক ছেলে, বউ, মা, বোন, জামাই নিয়ে অভাবের সংসারে এবার একটু স্বচ্ছলতা আসবে এই ভেবে গৌর দাস দারুন খুশী। তিনি চান, দুই মেয়ের বিবাহের জন্য কিছু টাকা জমা রাখতে। কিছু টাকা ছেলের পড়াশুনার জন্য গচ্ছিত রাখতে। আর কিছু টাকা দিয়ে দু এক বিঘা জমি কিনে চাষ আবাদ করতে,পাশাপাশি ভাঙাচোরা নিজের বাড়িটা সুন্দর করে মেরামত করতে। রবিবার লটারির ফলাফল ঘোষণার পর সোমবার গৌড়বাবু তাঁর টিকিট গুসকরারই একটি ব্যাঙ্কের শাখায় জমা করেছেন। আর এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই রীতিমত লাইমলাইটে রিক্সাচালক গুসকরার গৌর।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});