Headlines
Loading...
বর্ধমানে বিজেপির আনা তোলাবাজির অভিযোগ নস্যাত করে বিজেপি সমর্থকদের হাতেই পিএফের টাকা তুলে দিল তৃণমূল

বর্ধমানে বিজেপির আনা তোলাবাজির অভিযোগ নস্যাত করে বিজেপি সমর্থকদের হাতেই পিএফের টাকা তুলে দিল তৃণমূল



ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ সম্প্রতি বর্ধমান ষ্টেশনে টোটোর তোলাবাজি নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ, বোমাবাজির ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় এখনও জেল বন্দি সদ্য সিপিএম ছেড়ে বিজেপিতে আসা বিশ্বজিত সেন ওরফে খোকন সেন। বর্ধমান ষ্টেশনের এই দখলদারীকে ঘিরে দুটি রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের মধ্যে তৈরি হয়েছে চাপা উত্তেজনা। বর্ধমান ষ্টেশন কার দখলে থাকবে তা নিয়ে এই চাপান উতোরের মাঝেই তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিজেপির আনা তোলাবাজির অভিযোগের কড়া জবাব দিলেন জেলা আইএনটিটিইউসি সভাপতি ইফতিকার আহমেদ ওরফে পাপ্পু। 

বুধবার বর্ধমান টাউন হলে তৃণমুল কংগ্রেসের আই এন টিটিইউসি অনুমোদিত বর্ধমান ষ্টেশনের কনট্র‍্যাক্টচুয়াল লেবারস ইউনিয়ন এবং বর্ধমান ষ্টেশন ফুটপাত হকার্স ইউনিয়নের বার্ষিক সভা অনুষ্ঠিত হয়। দীর্ঘদিন ধরেই এই চুক্তিভিত্তিক কর্মীরা তাঁদের প্রভিডেন্ট ফান্ডের টাকা না পাওয়ায় ক্ষোভ জমেছিল। এদিন আই এন ট টি ইউ সি জেলা সভাপতি ইফতিকার আহমেদ ওরফে পাপ্পু দলমত নির্বিশেষে প্রায় ৮২ জন কর্মীদের হাতে তাদের বকেয়া পি এফের টাকা তুলে দিলেন। এই টাকা প্রাপকদের মধ্যে ছিলেন বিজেপি সমর্থক কর্মীরাও।

 
আইএনটিটিইউসি সদস্য তথা বর্ধমান ষ্টেশনের চুক্তিভিত্তিক কর্মী বাপি শর্মা জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরে তাঁরা পিএফের জমানো টাকা পাচ্ছিলেন না। এব্যাপারে জেলা আইএনটিটিইউসি সভাপতি ইফতিকার আহমেদ একটানা চেষ্টা করার পর প্রায় ৮২ জনের পিএফের টাকা উদ্ধার করতে সক্ষম হন। এদিন টাউন হলে ওই ৮২জনের হাতে পিএফের টাকা তুলে দেওয়া হয়। হাজির ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সাধারণ সম্পাদক তথা প্রাক্তন কাউন্সিলার খোকন দাসও। বাপি শর্মা জানিয়েছেন,বিজেপি তাঁদের বিরুদ্ধে লাগাতার অপপ্রচার করছে। কিন্তু এদিন যে পিএফের টাকা দেওয়া হয়েছে তার মধ্যে কয়েকজন বিজেপি সমর্থক চুক্তিভিত্তিক কর্মীও রয়েছেন। 

এদিন ইফতিকার আহমেদ জানিয়েছেন, বেশ কিছুদিন ধরেই বিজেপির পক্ষ থেকে বর্ধমান ষ্টেশনের টোটো ওয়ালাদের কাছ থেকে অবৈধভাবে তোলাবাজির অভিযোগ তোলা হচ্ছিল। এদিন এই সম্মেলনে সকলের সামনে রেল দপ্তরের নির্দেশিকা তুলে দেওয়া হয়েছে। কোন কোন গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য কত টাকা করে রেল দপ্তর নিতে বলেছে তাও সকলের সামনে তুলে ধরা হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, রেল দপ্তর প্রতিটি টোটো তথা ৩ চাকার যান থেকে প্রতিদিন ৩০ টাকা করে নিতে বলা হয়েছে। কিন্তু তাঁরা সংগঠনের পক্ষ থেকে টোটো চালকদের স্বার্থে ৩০ টাকার বদলে ১০ টাকা করে পার্কিং চার্জ ঠিক করে দিয়েছেন। তিনি এদিন জানিয়েছেন, বিজেপি মিথ্যা করে অভিযোগ তুলে বর্ধমান ষ্টেশনের শান্তি নষ্ট করার চেষ্টা করছে।

0 Comments: