Headlines
Loading...
বর্ধমানে কাটমানির টাকা ফেরত পেতে এবার তৃণমূল নেতাদের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের

বর্ধমানে কাটমানির টাকা ফেরত পেতে এবার তৃণমূল নেতাদের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ  সিপিএম করার অপরাধে গ্রামছাড়া করে দেবার পর তৃণমূল নেতাদের কাছে মুচলেখা দিয়ে এবং তার সঙ্গে মাথা পিছু ১০ হাজার টাকা জরিমানা দিয়ে ঘরে ঢুকেছিলেন সিপিএমের কট্টর কর্মী সমর্থকরা। ২০১৬ সালের সেই ঘটনার জের এবার এসে পড়ল কাটমানি কাণ্ডের মধ্যে। রবিবার পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষ থানার সগড়াই গ্রামের ৫জন সিপিএম সমর্থক কামু মূর্মু, গঙ্গা দাস, কিঙ্কর মাঝি, অধীর মালিক এবং কালিপদ ধাড়া খণ্ডঘোষ থানায় লিখিত অভিযোগ করে তাঁদের কাটমানির টাকা ফেরত চাইলেন। 

অভিযোগে উঠে এসেছে গৌতম মুখার্জ্জী, দিবাকর মণ্ডল,দীপঙ্কর ঘোষ ওরফে গ্যাঁড়া, সৌরভ রায়, রাজা মণ্ডল, মিহির ব্যানার্জ্জী, তপন মালিক প্রমুখ তৃণমূল নেতার নামে। এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে খণ্ডঘোষ জুড়ে। সিপিএমের কৃষকসভার জেলা সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য বিনোদ ঘোষ জানিয়েছেন,২০১৬ সালে গোটা খণ্ডঘোষ ব্লক জুড়েই তৃণমূল নির্বিচারে সিপিএমের বাড়ি বাড়ি অত্যাচার চালায়। তৃণমূলের অত্যাচারে বহু সিপিএম কর্মী সমর্থক বাড়ি ছাড়া হয়ে যায়। এই ঘটনায় তাঁরা দফায় দফায় জেলা প্রশাসনের কাছে সিপিএমের ঘরছাড়াদের তালিকা দিয়ে তাঁদের ঘরে ফেরানোর আবেদনও জানান। 

বিনোদবাবু জানিয়েছেন, এরই মাঝে সগড়াই এলাকার তৃণমূল নেতারা সিপিএমের ঘরছাড়াদের ঘরে ফেরাতে তাঁদের দিয়ে মুচলেখা লেখানো ছাড়াও ১০ হাজার টাকা করে নিয়ে গ্রামে ফিরতে দেন। এখন মুখ্যমন্ত্রী কাটমানির টাকা ফেরত দেবার কথা বলছেন। তাই যাঁরা সেই সময় টাকা দিয়েছিলেন তাঁদের কাছ থেকে টাকা ফেরতের দাবী জানিয়েছেন খণ্ডঘোষ থানায়। বিনোদবাবু জানিয়েছেন, শুধু ঘরছাড়াদের ঘরে ফেরানোর জন্য টাকা নেওয়াই নয়। সরকারী বিভিন্ন প্রকল্পে কাজ ও সুবিধা পাইয়ে দেবার নাম করেও কাটমানির স্টিম রোলার চালিয়েছে এতদিন তৃণমূলের নেতারা। এবার তাঁরা সেই টাকাও ফেরত চান। 

তিনি জানিয়েছেন,এব্যাপারে গোটা খণ্ডঘোষ ব্লক জুড়েই কিভাবে এবং কোন কোন প্রকল্পে কত টাকা, কার কার কাছ থেকে, কারা কারা নিয়েছেন সে সবের একটি তালিকা তাঁরা তৈরী করেছেন। খুব শীঘ্রই সেই তালিকা নিয়ে তাঁরা খণ্ডঘোষ বিডিও-র কাছে স্মারকলিপি দেবেন। এদিকে,এই ঘটনায় গোটা খণ্ডঘোষ ব্লক জুড়েই রীতিমত রাজনৈতিক আলোড়ন শুরু হলেও তৃণমূল কংগ্রেসের খণ্ডঘোষ ব্লক সভাপতি অপার্থিব ইসলাম জানিয়েছেন, কোনো তৃণমূলের নেতা যদি এভাবে টাকা নিয়ে থাকেন তার দায়িত্ব তাঁর নিজের। এব্যাপারে দল কোনো দায়িত্ব নেবে না। এব্যাপারে দল তাঁদের পাশে থাকবে না।

0 Comments: