Headlines
Loading...
সুপ্রীম কোর্টের রায় বাংলা ভাষাতেও অনুবাদ করার দাবী উঠলো পূর্ব বর্ধমান থেকে

সুপ্রীম কোর্টের রায় বাংলা ভাষাতেও অনুবাদ করার দাবী উঠলো পূর্ব বর্ধমান থেকে


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, ইংরেজির পাশাপাশি অসমিয়া, হিন্দি, কন্নড়, মারাঠি, তেলুগু ও ওড়িয়া ভাষাতে মিলবে শীর্ষ আদালতের রায় ৷ কিন্তু সেখানেই বাদ গেছে বাংলা ভাষা। যা নিয়ে সমস্ত বাংলার সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলি থেকেই তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। খোদ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ও এই ইস্যুতে তাঁর ক্ষোভের কথা জানিয়েছেন।

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, সারা পৃথিবীতে বাংলা পঞ্চম ভাষা এবং গোটা এশিয়ায় দ্বিতীয় ভাষা হিসাবে স্বীকৃত। তিনি আশা করছেন, বাংলা এই তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হবে। এদিকে, দেশের শীর্ষ আদালতের এই রায় নিয়ে যখন বাম, কংগ্রেস, তৃণমূল সকলেই ঐক্যমত্যে পৌঁছেছেন সেই সময় পূর্ব বর্ধমান জেলা থেকেও সুপ্রীম কোর্টের এই রায়কে বাংলা ভাষায় করার দাবী জানালো বেঙ্গল কালচারাল অর্গানাইজেশন নামে একটি সংস্থা। সংস্থার চেয়ারম্যান সুরমান আলি মণ্ডল বৃহস্পতিবারই সুপ্রীম কোর্টের প্রধান বিচারপতির কাছে এই রায় বাংলাতেও অনুবাদের দাবী জানালেন। এদিনই তিনি লিখিতভাবে এই আবেদনপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন।

সুরমান আলি মণ্ডল তাঁর আবেদনে বাংলার গুরুত্ব বোঝাতে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জনগণমন অধিনায়ক গান,বঙ্গিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের বন্দেমাতরমের উল্লেখ করেছেন। তিনি প্রধান বিচারপতিকে জানিয়েছেন, পশ্চিমবাংলায় বাংলা প্রধান ভাষা সেটাই নয়, পাশের দেশ বাংলাদেশেরও প্রধান ভাষা বাংলা। এমনকি শ্রীলঙ্কার জাতীয় সঙ্গীতও মুখ্যত বাংলায় রচিত। পরে সিংহলী ভাষায় অনুবাদিত হয়। তিনি জানিয়েছেন, ভারতবর্ষের প্রায় ১০ কোটি মানুষ বাংলা ভাষায় কথা বলেন। কেবলমাত্র পশ্চিমবাংলাই নয়, এর পাশাপাশি অন্যান্য বহু রাজ্যেই বাংলা ভাষাভাষী মানুষ বসবাস করেন।

সুরমান আলি মণ্ডল এদিন জানিয়েছেন, কেবলমাত্র ভারতবর্ষেই নয়,বিদেশের বহু দেশেই রয়েছেন বাংলা ভাষাভাষী মানুষ। ফলে সুপ্রীম কোর্টের রায় বাংলা ভাষায় অনুবাদিত হলে প্রভূত উপকার হবে এই সমস্ত মানুষের। এছাড়াও সব থেকে বেশি উপকৃত হবেন বাংলার গ্রাম গ্রামাঞ্চলের মানুষ। যাঁরা ইংরাজী বুঝতে পারেন না কিন্তু বাংলা বুঝতে পারেন, তাঁরা ভীষণ রকম উপকৃত হবেন।

0 Comments: